• ক্রিকেট বিশ্বকাপ ২০১৯
  • " />

     

    ফাইনালের ওভার থ্রোর সেই ভুল স্বীকার করলেন ধর্মসেনা

    বিশ্বকাপের ফাইনালে বেন স্টোকসের ব্যাটে লেগে ওভার থ্রোতে হওয়া সেই চার নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। এমসিসির নিয়ম থেকে শুরু করে আইসিসির সাবেক বর্ষসেরা আম্পায়ার সাইমন টফেল; সবাই কুমার ধর্মসেনার ওই সিদ্ধান্তকে ভুল বলেছেন। এত সমালোচনার পরেও মুখ খোলেননি ধর্মসেনা। ফাইনালের প্রায় এক সপ্তাহ পর শ্রীলংকান পত্রিকা সানডে টাইমসকে দেওয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে তিনি স্বীকার করেছেন, ওভার থ্রোর ওই সিদ্ধান্তটা ভুল ছিল। তবে নিজের অমন সিদ্ধান্তের জন্য কোন আফসোস নেই ধর্মসেনার।

    ম্যাচের শেষ ওভারে মার্টিন গাপটিলের থ্রো স্টোকসের ব্যাটে লেগে হয় চার। দৌড়ে আরও দুই রান নিয়েছিলেন স্টোকস-রাশিদ। সব মিলিয়ে ধর্মসেনা দিয়েছিলেন ছয় রান। টফেলসহ অন্যরা বলছেন, গাপটিল থ্রো করার সময় যেহেতুই দুই ব্যাটসম্যান একে অন্যকে অতিক্রম করেনি, তাই দেওয়া উচিত ছিল পাঁচ রান। শেষ পর্যন্ত ম্যাচ টাই হয়ে ফাইনাল গেছে সুপার ওভারে। 

    ধর্মসেনা এবার স্বীকার করে নিলেন তাঁর ভুল, ‘ওই সিদ্ধান্তটা ভুল ছিল। যেহেতু টিভি রিপ্লে দেখার মতো অবস্থায় ছিলাম না, তাই মানুষ হিসেবে এই ভুলটা হয়েছে। তৃতীয় আম্পায়ারসহ মাঠের সব আম্পায়ার, ম্যাচ রেফারিও (রঞ্জন মাদুগলে) ছয় রান দেওয়ার পক্ষে ছিলেন। আমি তাদের সাথে যোগাযোগ করেই সিদ্ধান্তটা নিয়েছি।’ 

    টিভিতে রিপ্লে দেখার সুযোগ ছিল না ওই মুহূর্তে, জানালেন ধর্মসেনা, ‘ওই মুহূর্তে টিভি আম্পায়ার রিপ্লে দেখার অবস্থায় ছিলেন না। তিনিসহ মাঠের অন্য আম্পায়ার আমাকে বলেছিলেন দুই ব্যাটসম্যান রান পূর্ণ করেছেন। এজন্যই আমি ছয় রান দিয়েছিলাম।’ 

    মাঠের বাইরে বসে যারা সমালোচনা করছেন, তাদের কথারও জবাব দিয়েছেন ধর্মসেনা, ‘টিভির সামনে বসে রিপ্লে দেখে মন্তব্য করা খুব সহজ। আমি স্বীকার করছি সিদ্ধান্তটা ভুল ছিল। এখন টিভিতে রিপ্লে দেখে আমি ভুলটা বুঝতে পারছি। কিন্তু ওই মুহূর্তে আমাদের কাছে টিভি রিপ্লে দেখার মতো অবস্থা ছিল না। তাই আমি নিজের সিদ্ধান্ত নিয়ে আফসোস করছি না।’