• অ্যাশেজ
  • " />

     

    ক্রিকেটার বদলির নিয়মে বিপাকে পড়ার শঙ্কা পেইনের

    মাথায় আঘাত পেয়ে খেলা চালিয়ে যেতে না পারলে এখন থেকে সেই ক্রিকেটারের বদলি নামানোর নিয়ম করেছে আইসিসি। আগামী অ্যাশেজেই আনুষ্ঠানিকভাবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে চালু হবে এই পদ্ধতি। তবে 'কনকাশন টেস্টে' উতরাতে না পারলে বদলি হতে হবে, এমন নিয়ম ক্রিকেটাররা সহজে মেনে নেবেন কিনা, সেটা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন অস্ট্রেলিয়ান টেস্ট অধিনায়ক টিম পেইন। সাউদাম্পটনে অনুশীলনের সময় সাংবাদিকদের পেইন জানিয়েছেন, নতুন এই নিয়ম কিছুটা বিপাকে ফেলতে পারে অধিনায়কদের।  

    পেইন হয়তো মনে করছেন ২০০৬ সালে ওয়ান্ডার্সের অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্টে বর্তমান কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারের সেই ঘটনা। প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ের সময় মাথায় আঘাত পেয়ে আহত অবসর নিয়েছিলেন ল্যাঙ্গার। দ্বিতীয় ইনিংসে রান তাড়া করার সময় অস্ট্রেলিয়ার আট উইকেট পড়ে যায়, তখনো দরকার ছিল ১০ রান। এমন অবস্থায় পুরোপুরি সুস্থ না হলেও ব্যাটিংয়ে নামার জন্য তৈরি হয়ে গিয়েছিলেন ল্যাঙ্গার। ওই সময় অধিনায়ক রিকি পন্টিং একরকম জোর করেই তাঁকে মাঠে নামতে বাঁধা দেন। 

    শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া ম্যাচটি জেতে দুই উইকেট হাতে রেখেই, ল্যাঙ্গারকেও আর মাঠে নামতে হয়নি। পন্টিং ম্যাচের পর বলেছিলেন, তিনি আসলে কী করবেন বুঝে উঠতে পারছিলেন না। ওই ম্যাচ যদি হেরে যেত অস্ট্রেলিয়া, তাহলে ব্যাটিংয়ে নামতে না দেওয়ার জন্য পন্টিংয়ের সাথে নাকি আর কখনোই কথা না বলার ‘হুমকি’ দিয়েছিলেন ল্যাঙ্গার! 

    পেইন বলছেন, ম্যাচের মাঝপথে কেউই হয়তো বদলি হতে চাইবে না, ‘আমি নতুন নিয়মটার ব্যাপারে জানি। কিন্তু টেস্ট ম্যাচ থেকে এভাবে কাউকে বদলি করাটা কঠিন হয়ে যাবে। নিয়মটা কীভাবে কাজ করে সেটাই দেখার অপেক্ষায় আছি। ক্রিকেটারদের নিরাপত্তা আমরা সবাই চাই। তবে সবার কাছেই নিয়মটা নতুন। ম্যাচের মাঝপথে ক্রিকেটার বদল করতে হতে পারে, এটা ভাবতেই কেমন যেন লাগছে! এরকম কিছু হওয়া পর্যন্ত আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।’ 

    ১ আগস্ট এজবাস্টনে শুরু হবে এবারের অ্যাশেজের প্রথম টেস্ট।