• অন্যান্য
  • " />

     

    বিশ্বকাপ জিতেও প্রাইজমানি পায়নি নিউজিল্যান্ড নারী নেটবল দল

    এক সপ্তাহ আগেই বিশ্বকাপে রানার্সআপ হয়ে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল সব মিলিয়ে পেয়েছিল চার লাখ ডলারের মতো। সেই ইংল্যান্ডেই বসেছিল নেটবল বিশ্বকাপের আসর। ক্রিকেট দলের চেয়ে একধাপ এগিয়ে গেছে নিউজিল্যান্ডের নারী নেটবল দল, তাঁরা জিতেছে শিরোপা। তবে অবাক করা ব্যাপার হচ্ছে, শিরোপা জিতেও কোন প্রাইজমানি পাচ্ছেন না তাঁরা! 

    রোমাঞ্চকর এক ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী অস্ট্রেলিয়াকে ৫২-৫১ ব্যবধানে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ডের মেয়েরা। ২০০৩ সালের পর এই প্রথমবার নেটবলের আন্তর্জাতিক শিরোপা জিতল নিউজিল্যান্ড। শিরোপা জিতেও একটা হতাশা থেকেই যাচ্ছে। এই টুর্নামেন্ট থেকে কোনো প্রাইজমানি পাবেন না তাঁরা। রানার্সআপ ও টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া অন্য দলের মতো খালি হাতেই দেশে ফিরতে হবে তাদের। 

    পুরুষ ও নারীদের খেলার প্রাইজমানি নিয়ে বিতর্কটা বহুদিনের। টেনিসে নারী পুরুষের প্রাইজমানি সমান হলেও অন্য খেলায় সেটার বিস্তর ফারাক। নিউজিল্যান্ডের বিশ্বকাপজয়ী এই নেটবল দলের কথাই ধরা যাক। বিশ্বকাপ জয়ের পর কেন উইলিয়ামসনরা যত বোনাস পেয়েছেন, নেটবলের দলের সদস্যরা পুরো বছরেও সেটা আয় করতে পারেন না!

    নিউজিল্যান্ড নেটবল দলের বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই মূল খেলার পাশাপাশি অন্য কাজ করেন টাকা উপার্জনের জন্য। অনুশীলন, যাতায়াতসহ খরচের বড় একটা অংশ তাদের নিজেদেরই বহন করতে হয়। অনেকেই তাই অন্য পেশায় ফিরে যাওয়ার কথাও ভাবেন মাঝে মাঝে।

    বিশ্বকাপ জেতার পর প্রাইজমানি তো আসেইনি, দেশে ফিরে খুব বড় করে উদযাপনও করা হচ্ছে না নিউজিল্যান্ডের নারী নেটবল দলের। তাঁরা আশা করছেন খুব দ্রুতই নেটবলের দলের জন্য বড় কোনো স্পন্সর এগিয়ে আসবে।