• ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    সব ম্যাচে সমানভাবে ভিএআর প্রয়োগের দাবি গার্দিওলার

    ভিএআরের সাথে যেন পেপ গার্দিওলার ‘শত্রুতা’! চ্যাম্পিয়নস লিগের গত মৌসুমের কোয়ার্টার ফাইনালের মতো গতকালও টটেনহামের বিপক্ষে ম্যানচেস্টার সিটিকে জয়বঞ্চিত করেছে ভিএআর। শেষ মুহূর্তে গোল বাতিল হওয়ায় ২-২- গোলের ড্র নিয়েই মাঠ ছেড়েছে সিটি-টটেনহাম। ম্যাচ শেষে গার্দিওলা বলছেন, ভিএআরের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছেন তিনি। তবে সব ম্যাচে এই রিভিউ পদ্ধতির সমান ব্যবহার নিশ্চিত করার তাগিদও দিলেন সিটি কোচ। 

    অতিরিক্ত সময়ে গোল করে সিটিকে উল্লাসে ভাসিয়েছিলেন গ্যাব্রিয়েল হেসুস। তবে কর্নারের সময় আয়মেরিক লাপোর্তের হাতে বল লাগায় ভিএআরে সেই গোল বাতিল করেন রেফারি। নতুন নিয়ম অনুযায়ী ইচ্ছাকৃত কিংবা অনিচ্ছাকৃত সব ধরনের হ্যান্ডবলেই গোল বাতিল হবে। উদযাপন করেও তাই গোল পাননি হেসুস, জয় পায়নি সিটিও। 

    গার্দিওলা বলছেন, সব ম্যাচে সমানভাবে ভিএআরের প্রয়োগ হচ্ছে না, ‘গত মৌসুমে ছিল অফসাইড, এবার হ্যান্ডবল। রেফারি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সেটা মেনে নেওয়া ছাড়া আর কিছু তো করার নেই। তবে ভিএআর সবখানে সমানভাবে প্রয়োগের ব্যাপারে আরও সচেতন হওয়া উচিত। গত মৌসুমে ফার্নান্দো লোরেন্তের একটা হ্যান্ডবল কেনো দেওয়া হয়নি? এবার লিভারপুল-চেলসি ম্যাচে ক্রিস্টেনসেনের হাতে বল লাগলেও পেনাল্টি দেওয়া হয়নি। আমরাও একটা পেনাল্টি পেতে পারতাম যখন এরিক লামেলা রদ্রিগোকে ফাউল করেছিল। ওই মুহূর্তে হয়তো ভিএআরের সবাই কফি খেতে গিয়েছিলেন!’ 

    এদিকে টটেনহাম কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো ম্যাচের পর স্বীকার করে নিয়েছেন, সিটি তাদের চেয়ে ভালো খেলেছে,  ‘তাঁরা আমাদের চেয়ে ভালো খেলেছে। ম্যাচের বেশিরভাগ সময় তাদেরই দাপট ছিল। এমন ম্যাচের পর একটি পয়েন্ট পেয়ে খুবি খুশি। আমরা দুইবার পিছিয়ে পড়েও ফিরে এসেছি। আমরা লড়াই করতে জানি এটাই তাঁর প্রমাণ। এখনো আমাদের স্কোয়াডটা পুরোপুরি সাজানো হয়নি। দলবদলের মৌসুম শেষ হলে আমরা জানতে পারব কে থাকবে আর কে যাবে।’