• দক্ষিণ আফ্রিকার ভারত সফর
  • " />

     

    মেসির চেয়ে রোনালদোকেই বেশি পছন্দ কোহলির

    মেসির চেয়ে রোনালদোকেই বেশি পছন্দ কোহলির    

    ফুটবল নিয়ে বিরাট কোহলির ভালোবাসার কথাটা কারো অজানা নয়। নিয়মিত ক্লাব ফুটবলের খোঁজ খবর রাখেন, প্রিয় ক্লাব টটেনহামের হ্যারি কেইনের সাথে বিশ্বকাপের সময় দেখাও হয়েছে কোহলির। ভারতীয় সুপার লিগের এফসি গোয়ার অন্যতম মালিকও তিনি। সেই দলের নতুন জার্সি উন্মোচনের অনুষ্ঠান শেষে টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে দেওয়া এক বিশেষ সাক্ষাতকারে কোহলি বলছেন, ফিটনেসের ব্যাপারে ফুটবলারদের থেকেই অনুপ্রেরণা নেওয়া উচিত ক্রিকেটারদের। 

    ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই কোহলির ফিটনেস ঈর্ষনীয়। ফুটবলারদের থেকে ফিট থাকার অনুপ্রেরণা পান কোহলি, ‘আমরা সবসময়ই ফুটবলারদের নিয়মানুবর্তিতা থেকে অনুপ্রাণিত হই। সব খেলাতেই মাঠে নিজের সেরাটা দেওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকতে হয়। ফুটবলাররা সবচেয়ে বেশি পেশাদার। সেটা শারীরিক প্রস্তুতি হোক কিংবা খাদ্যাভ্যাস ও বিশ্রাম। তাদের থেকে অনেক কিছুই শিখতে পারি আমরা।’ 

    কোহলি যখন ফুটবলার

     

    ক্রিকেটার ও ফুটবলারদের ফিটনেসকে অবশ্য এক পাল্লায় মাপতে চান না কোহলি, ‘দুটিকে আপনি তুলনা করতে পারবেন না। ফাস্ট বোলারদের সাথেই তাদের একটু যা তুলনা করা যায়। ক্রিকেটে ফুটবলের মতো শারীরিক ফিটনেসের দরকার হয় না। ফুটবল ৯০ মিনিটের খেলা, এটা খুব দ্রুততার সাথে চলে। সেখানে পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নিতে ওইভাবেই ফিট হতে হবে। যদি কেউ ফুটবলারদের মতো ফিটনেস চায়, তাহলে ক্রিকেটে সে অনেক বেশি ভালো করবে। আমরা এটা করারই চেষ্টা করছি। ফুটবলাররা ক্রিকেটারদের চেয়ে অনেক বেশি ফিট।’ 

    ফুটবলে কে সেরা, লিওনেল মেসি না ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো? এমন প্রশ্ন রাখা হয়েছিল কোহলির সামনেও। কোহলির পছন্দ রোনালদোই, ‘ব্যক্তিগতভাবে আমি রোনালদোকেই বেশি পছন্দ করি। মেসি জন্মগত প্রতিভা, অবিশ্বাস্য একজন ফুটবলার। তবে রোনালদো প্রতিটা মিনিট যেভাবে খেলে, সেটাই তাকে অন্যদের চেয়ে আলাদা করে। শীর্ষ পর্যায়ে যারাই খেলেন, সবাই প্রতিভাবান। তবে রোনালদোর যে ইচ্ছাশক্তি আছে, সেটা অন্য কারো নেই।’ 

    পর্তুগালের রোনালদো ও ব্রাজিল কিংবদন্তি রোনালদোর মাঝেও সিআর সেভেনকেই এগিয়ে রাখছেন কোহলি, ‘দুইজনের মাঝে কে এগিয়ে, সেটা কঠিন প্রশ্ন। তবে রোনালদোই আমার দেখা পূর্ণাঙ্গ ফুটবলার। ডান-বাম যে পা হোক, গতি-ড্রিবলিং স্কিল যাই হোক না কেনো, সে সেটায় অসাধারণ। তার চেয়ে ভালো গোলদাতা আমি দেখিনি। অন্যদিকে ব্রাজিলের রোনালদো পুরোপুরি অন্য উচ্চতার একজন ফুটবলার। তিনি ফুটবলকে বদলে দিয়েছে, সবাই তার ভক্তও। তিনি বিশেষ একজন ফুটবলার। তবে দুই রোনালদোর মাঝে একজনকে বেছে নিতে হলে আমি ক্রিশ্চিয়ানোর কথাই বলবো।’ 

    এফসি গোয়ার অন্যতম মালিক কোহলি। অবসরের পর ফুটবল নিয়ে কাজ করার ইচ্ছার কথাও জানালেন ভারতীয় অধিনায়ক, ‘এই মুহূর্তে আমি নিজের সংস্থায় অ্যাথলেটদের নিয়ে কাজ করছি। এফসি গোয়াকে নিয়েও ভবিষ্যতে বড় পরিকল্পনা আছে। আমরা চাই যেসব ফুটবলার গোয়ার হয়ে খেলবে তাদের খেলার মান বাড়ুক, ভবিষ্যতে তারা জাতীয় দলের হয়ে খেলুক। আমি এখানেই নিজের শ্রম দিতে চাই। শুধু খেলার সময় স্টেডিয়ামে আসতে চাই না, তৃনমূল পর্যায়ে কাজ করতে চাই। অবসরের পর এটা আমার অন্যতম প্রধান লক্ষ্য। যেহেতু আমি গোয়ার সাথে যুক্ত আছি, সার্বিকভাবে পুরো ফুটবলেই অবদান রাখতে চাই।’ 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন