• দক্ষিণ আফ্রিকার ভারত সফর
  • " />

     

    অ্যাওয়ে টেস্টে টস না রাখার পক্ষে ডু প্লেসি

    ফাফ ডু প্লেসির টস ভাগ্যটা এতোই খারাপ চলছিল যে, রাঁচি টেস্টে টসের সময় তিনি সাথে নিয়ে এসেছিলেন টেম্বা বাভুমাকে। তাতেও অবশ্য অবস্থার খুব একটা পরিবর্তন হয়নি, সেই টসেও হেরেছেন ডু প্লেসি। ভারতের বিপক্ষে পুরো সিরিজে একবারও টসে জিততে পারেনি দক্ষিণ আফ্রিকা। টেস্টে বিরাট কোহলিদের কাছে প্রথমবারের মতো হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর ডু প্লেসি সাংবাদিকদের বলছেন,অ্যাওয়ে টেস্টে টস না হলেই সফরকারী দল ম্যাচে ভালো করার সমান সুযোগ পাবে। 

    ভারতকে তাদের মাটিতে হারানো বরাবরই কঠিন কাজ ছিল সফরকারী দলদের জন্য। গত কয়েক বছরে সেটা আরও কঠিন কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ঘরের মাঠে শেষ ৩৩ টেস্টে ভারত হেরেছে মাত্র একটিতে! ভারতে হওয়া শেষ দশ টেস্টে টসে হেরে মাত্র তিনবারই জয় পেয়েছে কোনো দল। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ভারত দুইবার টসে হেরেও ম্যাচ জিতেছে। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে টসে হেরে শেষ পর্যন্ত জয় পেয়েছিল আফগানিস্তান। টসে হেরে অনেক লড়াইয়ের পর দুই বছর আগে ম্যাচ বাঁচাতে পেরেছে শ্রীলংকা। যদিও বৃষ্টি তাদের সহায়তা করেছে অনেকটাই।  

    বাভুমাকে সাথে নিয়ে টস করেও ভাগ্য ফেরেনি ডু প্লেসির

     

    ডু প্লেসি মানছেন, টসে হেরে ভারতের রানের পাহাড়ে চাপা পড়েই ম্যাচ হাতের নাগালের বাইরে চলে গেছে তাদের, ‘প্রতি টেস্টেই ভারত ব্যাটিংয়ে নেমে ৫০০ করেছে। যখন তারা ইনিংস ঘোষণা করেছে তখন অন্ধকার হয়ে আসছিল। ঐ অবস্থায় আমরা ব্যাটিংয়ে নেমে দুই-তিনটি উইকেট হারিয়েছি। এতে যে চাপে পড়েছে দল, সেখান থেকে আর বের হয়ে আসতে পারেনি। তিনটি টেস্টেই একই অবস্থা ছিল।’ 

    সফরকারি দলের টস না করার ব্যাপারে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল আগেও। ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেটে এবার পরীক্ষামূলকভাবে এটার প্রয়োগও করা হয়েছিল। সফরকারী দল সিদ্ধান্ত নিতে পারত তারা ব্যাটিং করবেন না বোলিং। স্বাগতিক দলের সুবিধা কমাতেই এমনটা করা হয়েছিল। পাকিস্তানের কায়েদে আজম ট্রফিতেও ছিল এই নিয়ম। ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেতেও এই ব্যাপারটা নিয়ে আলোচনা চলছে। 

    ডু প্লেসিও অ্যাওয়ে ম্যাচে টস বাতিল চান, ‘যদি এরকমটা করা হয়, তাহলে সফরকারী দলের ভালো ফলাফল করার একটা সুযোগ থাকবে। দক্ষিণ আফ্রিকায় যদি এমন নিয়ম করা হয় তাহলে আমি খুশিই হবো। আমরা তো এমনিও ঘাসে ভরা পিচেই শুরুতে ব্যাটিং করি।’