• ক্রিকেট, অন্যান্য
  • " />

     

    নিসাঙ্কা-মেন্ডিসের ফিফটির পর এবাদতের আঘাত

    ২য় আন-অফিশিয়াল টেস্ট, ১ম দিনশেষে 
    শ্রীলঙ্কা ‘এ’ ২২৩/৫*, ৭৪ ওভার 


    পাথুম নিসাঙ্কা ও কামিন্দু মেন্ডিসের ফিফটিতে পাওয়া শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের ভাল ভিতটা শেষবেলায় এসে নাড়িয়ে দিয়েছেন পেসার এবাদত হোসেন। দ্বিতীয় আন-অফিশিয়াল টেস্টের প্রথম দিন শেষে হাম্বানটোটায় তাই ভালভাবেই লড়াইয়ে আছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। 

    টসে জিতে ব্যাটিং করতে নামা শ্রীলঙ্কা ওপেনিং জুটি তুলেছিল ৩২ রান। আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান সাঙ্গিথ কুরেকে ক্যাচ বানিয়ে ব্রেকথ্রু দিয়েছিলেন মেহেদি হাসান মিরাজ। এরপরের দুই উইকেটও নিয়েছেন মিরাজ, তবে এর মাঝে ২য় উইকেটে নিসাঙ্কা ও মেন্ডিস তুলে ফেলেছিলেন ১২১ রান। 

    প্রথমে মিরাজের বলে উইকেটকিপার নুরুল হাসান সোহানের হাতে ক্যাচ দিয়েছিলেন ১২১ বলে ৮ চার ও ১ ছয়ে ৬২ রান করা মেন্ডিস। ৪র্থ উইকেটে অধিনায়ক আশান প্রিয়াঞ্জনের সঙ্গে আর ৩৫ রান করার পর ফিরেছেন নিসাঙ্কা। তিনি থেমেছেন সেঞ্চুরি থেকে ১৫ রান দূরে, হয়েছেন মিরাজের বলে এলবিডব্লিউ। ৮৫ রানের ইনিংস খেলতে তিনি খেলেছেন ১৬৬ বল, মেরেছেন ১১টি চার। 

    প্রিয়াঞ্জন ও আসালাঙ্কার ২৯ রানের জুটি ভাঙার পর এরপর প্রিয়ামাল পেরেরাকেও ফিরিয়েছেন এবাদত হোসেন। প্রিয়াঞ্জন ও পেরেরা করেছেন যথাক্রমে ২৮ ও ৪ রান। 

    এবাদত ২ উইকেট নিয়েছেন ১৭ ওভার বোলিং করে, ৫১ রান দিয়ে। ৩ উইকেট নিতে মিরাজ খরচ করেছেন ৬৬ রান, করেছেন ৩১ ওভার। আগের ম্যাচে বেশ খরুচে থাকা মিরাজ এদিন বোলিং করেছেন ২.১২ ইকোনমি রেটে। পেসার সালাউদ্দিন শাকিল ও লেগস্পিনার রিশাদ হোসেন ১৩ ওভার করে ছিলেন উইকেটশূন্য। 

    এদিন খেলা হতে পেরেছে ৭৪ ওভার। বৃষ্টির কারণে আগের ম্যাচটি হয়েছিল নতুন সূচিতে, যেটি শেষ পর্যন্ত হয়েছিল ড্র।