• এফ এ কাপ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    দর্শকের বর্ণবাদী আচরণে পরিত্যক্ত এফএ কাপের ম্যাচ

    মাঠে বর্ণবাদী আচরণ দেখলে ইংল্যান্ড জাতীয় দলের ফুটবলারদের মাঠ ছাড়ার হুমকির খবরটা পুরনো। বুলগেরিয়ার বিপক্ষে এরকম ঘটনা ঘটলেও শেষ পর্যন্ত খেলা চালিয়ে গেছে গ্যারেথ সাউথগেটের দল। তবে বর্ণবাদের কারণে এবার ফুটবলারদের মাঠ ছেড়ে বের হয়ে যাওয়া ও ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়া দেখল এফএ কাপের বাছাইপর্ব। এফএ কাপের হ্যারিনগে বোরো ও ইয়োভিল টাউনের ম্যাচে হ্যারিনগে গোলরক্ষক ডগলাস পায়েটাটকে নিয়ে দর্শকের বর্ণবাদী স্লোগানের পর মাঠ ছেড়ে বের হয়ে গেছে দুই দলই।

    ম্যাচের তখন ৬৪ মিনিট। কোলস পার্ক স্টেডিয়ামে পেনাল্টি পাওয়ার পর শট নিতে তৈরি হচ্ছিলেন ইয়োভিলের রায়েস মার্ফি। কিন্তু তাঁর পেনাল্টি নেওয়ার আগেই গোলপোস্টের পেছন থেকে ইয়োভিলের সমর্থকরা কিছু একটা ছুড়ে মারে হ্যারিনগে গোলরক্ষক পায়েটাটের দিকে। এটা নজর এড়ায়নি রেফারি কিংবা দুই দলের কারোরই। পেনাল্টি নেওয়ার পরপরই নিজের ফুটবলারদের মাঠ ছেড়ে চলে আসার আহবান জানান হ্যারিনগে কোচ টম লইজু। কোচের কথা মেনে মাঠ ছাড়েন হ্যারেনগের সবাই, পরবর্তীতে আর মাঠে ফেরেননি তারা। 

    'কেনো ছুড়ে মারলে ঐ বস্তু?' পায়েটাটের প্রশ্ন ছিল হয়তো এটাই 

     

    রেফারি শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন। হ্যারিনগে কোচ লইজু এই ঘটনার পর বলেছেন, কিছুতেই ঐ ঘটনার পর ফুটবলারদের মাঠে থাকতে দিতে চাননি তিনি, ‘আমি কোনভাবেই তাদের খেলতে দিতে চাইনি। আমরা যদি এটার জন্য শাস্তি পাই ও টুর্নামেন্ট থেকেও বিদায় নিতে হয়, তাতেও আমাদের আপত্তি নেই। জঘন্য একটা ঘটনা ঘটেছে। আমার ফুটবলারদের মুখের দিকে তাকিয়েই এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছি। ইয়োভিলের ফুটবলাররাও তাদের সমর্থকদের শান্ত করার চেষ্টা করেছে। তারা নিজেদের সর্বোচ্চ চেষ্টাই করেছে। আমরা যখন বের হয়ে যাবো বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, তারা আমাদের বলেছে যে, আমরা বের হয়ে গেলে তাঁরাও মাঠ ছাড়বে। আমি চাই না তারা টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়ুক।’ 

    ইয়োভিল টাউনের কোচ ড্যারেন সার্লকেও পাশে পাচ্ছে হ্যারিনগে, ‘আমরা হ্যারিনগের ফুটবলারদের পাশে আছি। এরকম কিছু ঘটবে আমি কল্পনাতেও ভাবিনি। ফুটবল খেলতে এসে কাউকে এরকম মন্তব্য শুনতে হতে পারে, সেটা খুবই দুঃখজনক ব্যাপার। হ্যারিনগের সাথে মাঠ ছেড়ে আমরা ঠিক কাজই করেছি। এখন কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেবে কী করা যায় ম্যাচটা নিয়ে।’ 

    ইংলিশ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, এই ব্যাপারে তদন্ত করেই সিদ্ধান্ত জানাবেন তারা। বাছাইপর্বের এই ম্যাচটি যে জিতবে, সে এফ এ কাপের মূল পর্বে খেলার সুযোগ পাবে।  

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন