• ইউরো বাছাইপর্ব
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    মরেনোকে 'অবিশ্বস্ত' বলে বোমা ফাটালেন এনরিকে

    স্পেন কোচ লুইস এনরিকে তার সাবেক সহকারি রবার্তো মরেনোকে 'অবিশ্বস্ত' বলে মন্তব্য করেছেন। তার নতুন সহকারিদের দল থেকে এ কারণেই মরেনোকে বাদ দিয়েছেন বলেও জানিয়েছেন এনরিকে। 

    এ বছরের শুরুর দিকে মেয়ের অসুস্থতার কারণে স্পেন কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন এনরিকে। এনরিকের সহকারি মরেনো প্রথমে কিছুদিন অন্তবর্তীকালীন কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন, এর পর তাকে স্থায়ী কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয় স্পেন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। তখন মরেনো জানিয়েছেন এনরিকে ফিরে আসতে চাইলে তিনি খুশি মনে তার পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন। 

    মেয়ের মৃত্যুর প্রায় তিন মাস পর আবারও স্পেনের নতুন কোচ হিসেবে এনরিকেকে দায়িত্ব দেওয়া হলে এর পর অবশ্য মরেনো বিদায় নিয়েছিলেন চোখের জলে। এনরিকের ফিরলেও তার দলে আর মরেনোকে রাখেননি তিনি। সেই ঘটনার ব্যখ্যা এনরিকে দিয়েছেন নতুন কোচ হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব বুঝে নেওয়ার পর।

    "সেপ্টেম্বরের ১২ তারিখ আমি মরেনোর সঙ্গে আমি বৈঠকে বসেছিলাম। আমার বাড়িতে ২০-৩০ মিনিটের মতো কথা হয়েছিল আমাদের। তখন একটা ব্যাপার পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল যে মরেনো ইউরোতে দলের দায়িত্বে থাকতে চায়। আমি জানতাম এমনটাই হবে, এটাই স্বাভাবিক। সে এমনিতেও দূরদর্শী লোক, আমি সেটা বুঝি। কিন্তু আমার জন্য তখন সে অবিশ্বস্ত লোক।" 

    "আমি আমার সহকর্মীদের ভেতর এমন কাউকে চাই না। এটা একটা বড় দোষ।" 

    সাবেক বার্সেলোনা কোচ এনরিকেকে স্পেনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ২০২২ কাতার বিশ্বকাপ পর্যন্ত। তার সহকারিদের মেয়াদও একই। গত সপ্তাহে এনরিকের সঙ্গে সম্পর্কের ব্যাপারে জিজ্ঞেস করার পর মরেনো বলেছিলেন এই নিয়ে কথা না বাড়ানোই ভালো। কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি। এনরিকে অবশ্য চুপ থাকলেন না তার মতো।  

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন