• ভারতের নিউজিল্যান্ড সফর
  • " />

     

    মাঠের আচরণ নিয়ে প্রশ্ন শুনে বিরক্ত কোহলি

    ব্যাটিং কিংবা ব্যাটিংয়ের বাইরে- সময়টা বিরাট কোহলির ঠিক ভাল যাচ্ছে না মোটেও। ব্যাট হাতে যেমন নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন, মাঠে তার আচরণও এসেছে আলোচনায়। আউট হয়ে ফিরে যাওয়ার পর কেন উইলিয়ামসনকে উদ্দেশ্য করে করা তার অঙ্গভঙ্গি বা সে নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে করা প্রশ্ন- কোহলি ছিলেন বেশ আক্রমণাত্মক। দর্শকদের সঙ্গেও ঝামেলায় জড়িয়েছেন ভারত অধিনায়ক। 

    ব্যাটিংয়ে ৪ ইনিংস ব্যাট করে ৪৮ রান করেছেন, নিজের কাজটা ঠিকঠাক করতে না পারাতেই কিনা ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় টেস্টে ফিল্ডিংয়ে একটু তেঁতে ছিলেন তিনি। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তাই অবধারিতভাবে কোহলিকে ম্যাচে তার আচরণ নিয়ে প্রশ্ন করা হল। বিষয়টি নিয়ে এক স্থানীয় সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে আবারও রুদ্রমূর্তি ধারণ করলেন তিনি। অধিনায়ক হিসেবে ম্যাচে তার আচরণ আরেকটু সংযত হতে পারত কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে কোহলি উল্টো প্রশ্ন ছুড়ে দেন, “আপনার কি মনে হয়?” সেই সাংবাদিকও থেমে থাকেননি, অকপটে বললেন, “প্রশ্নটা আসলে আমি করেছিলাম।”

    এরপর কোহলি ঝাঁঝালো টোনে উত্তর করলেন, “আমিও আপনার কাছ থেকেই উত্তরটা চাচ্ছি। প্রথমে আপনার জানা উচিৎ, আসলে মাঠে কি ঘটেছে। তারপর সেই মতো প্রশ্ন করা উচিৎ। অর্ধেক তথ্য নিয়ে প্রশ্ন করা উচিৎ নয়। আর যদি আপনি বিতর্ক তৈরি করতে চান, তাহলে আমি আপনাকে বলব, এখানে সেটি হবে না। আমি ম্যাচ রেফারির সঙ্গে কথা বলেছি। আমার বিষয়গুলো নিয়ে কোনও চিন্তা নেই। সুতরাং ধন্যবাদ।”

    দ্বিতীয় টেস্টের পুরোটা সময় ফিল্ডিংয়ে তেঁতে ছিলেন কোহলি। কিউই ওপেনার টম ব্লান্ডেলের সঙ্গে একচোট বাগযুদ্ধ হয়েছে তার। এরপর স্বাগতিক দর্শকরা তাকে কিছুটা উত্যক্ত করলে তাদেরকেও ছেড়ে কথা বলেননি। দর্শকদের দিকে তাকিয়ে মুখভঙ্গি করে বুঝিয়েছেন যে তারা হয়ত একটু বেশিই মদ্যপান করেছেন। টম লাথাম আউট হওয়ার পরও দর্শকদের দিকে তাকিয়ে ঠোঁটের উপর তর্জনী এনে ‘চুপ’ থাকতে বলেন তাদের। 

    অবশ্য শুধু কোহলির স্লেজিং নিয়েই যে ম্যাচ শেষে কথা হচ্ছে তা কিন্তু নয়। কোহলির উত্তেজিত আচরণের সঙ্গে মাঠে ভারতের একটি ট্যাকটিকও বেশ সমালোচিত হচ্ছে। নিউজিল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে চতুর্থ ওভারে লাথাম বল ফাইন লেগে ঠেলে দিয়ে এক রান নিচ্ছিলেন, তখনই ব্যাটসম্যানকে ধন্দে ফেলতে ভারতের একজন ফিল্ডার চিৎকার করেন ‘টু’। বিষয়টি নিয়ম বহির্ভূত হওয়ায় আম্পায়ার রিচার্ড কেটেলবরো অধিনায়ক কোহলিকে ডেকে সতর্ক করেন। 


     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন