• উইমেনস টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২০
  • " />

     

    মেয়েদের বিশ্বকাপ ফাইনালে গ্যালারিতে ছিলেন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত একজন

    ৮ মার্চ ব্যাপক উন্মাদনার মধ্য দিয়ে মেলবোর্নের এমসিজিতে অস্ট্রেলিয়া এবং ভারতের মধ্যকার নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়েছিল। প্রায় ৮৬ হাজার দর্শকে সেদিন মুখর ছিল মেলবোর্নের মাঠ। তবে সেদিন মাঠে বসে খেলা উপভোগ করা একজনের করোনা ভাইরাস ধরা পড়েছে। এমসিজির নর্দার্ন স্ট্যান্ডে বসে খেলা দেখেছিলেন সেই দর্শক। 

    মেলবোর্ন ক্রিকেট ক্লাব বিষয়টি নিয়ে এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে, “৮ মার্চ নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দেখতে আসা একজনের কোভিড-১৯ সংক্রমণ ধরা পড়েছে। ডিপার্টমেন্ট অব হেলথ এন্ড হিউম্যান সার্ভিসেসের মতে, লো রিস্ক করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ হয়েছে সেই ব্যক্তির। তিনি নর্দার্ন স্ট্যান্ডের লেভেল ২-য়ে এন৪২ সেকশনে বসে খেলা দেখেছেন।”

    এদিকে এন৪২-এর একজনের করোনা ভাইরাস ধরা পড়ার পর সেই সেকশনের অন্যান্যদের সতর্কতা অবলম্বলনের পরামর্শ দিয়েছে সংস্থাটি, “যারা এন৪২ সেকশনে বসে খেলা উপভোগ করেছেন, স্বাস্থ্য বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী তারা তাদের দৈনন্দিন কাজ চালিয়ে যেতে পারবেন। তবে কোনও শারীরিক সমস্যা দেখা দিলে তাদের অবশ্যই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে।”

    এদিকে যথা সময়ে আইপিএল শুরু করা নিয়েও শঙ্কা দেখা দিয়েছে। আগামী শনিবার আইপিএল আয়োজন নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে বসবে বিসিসিআই। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি’র তথ্যমতে, ফাঁকা মাঠে আইপিএল আয়োজনের বিষয়টিও ভেবে দেখেছে ভারতীয় ক্রিকেটের এই অভিভাবক সংস্থা।

    এদিকে এই মাসের ২৬-২৯ মার্চ সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে আইসিসির বোর্ড মিটিং হওয়ার কথা থাকলেও সেটি নিয়েও অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ বিষয়ক নানা প্রতিবন্ধকতা তৈরি করায় মিটিংয়ে অংশ নিতে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বোর্ড সদস্যরা আসতে পারবেন কিনা সেটি নিশ্চিত না হওয়াতেই মূলত এই অনিশ্চয়তা।
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন