• অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপ ২০১৬
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    চ্যাম্পিয়ন হয়েই কোয়ার্টারে যুবারা

    দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে নামিবিয়া ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছিল, বাংলাদেশের শেষ ম্যাচটা অতটা সহজ নাও হতে পারে। কিন্তু সব সংশয় এক ফুৎকারেই উড়িয়ে দিলেন মিরাজরা। নামিবিয়াকে ৮ উইকেটে হারিয়েই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হিসেবে অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে পা রেখেছে বাংলাদেশ। সেখানে তাঁদের প্রতিপক্ষ নেপাল।

     

    কক্সবাজারের শেখ কামাল স্টেডিয়ামে শুরু থেকেই নামিবিয়া উইকেট হারাতে শুরু করে। ৬ রানে প্রথম উইকেটের পর ১০ রানের মাথায় পড়ে দ্বিতীয় উইকেট। এরপর ডাভিন ও লরেন্স মিলে  প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টাও করলেও সেটা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। ৩৭ রানে ডাভিনের আউটের পর নামিবিয়া উইকেট হারিয়েছে নিয়মিত বিরতিতেই। শেষ পর্যন্ত ৩২.৫ ওভারেই অলআউট হয়েছে ৬৫ রানে। বাংলাদেশের পক্ষে শাওন, মিরাজ ও আরিফুল নিয়েছেন দুইটি করে উইকেট। অধিনায়ক মিরাজ ছুঁয়ে ফেলেছেন যুব বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশী উইকেটের রেকর্ড।

     

    ৬৬ রান তাড়া করে জিততে না পারলে সেটা অবিশ্বাস্যর চেয়েও বেশী কিছু হতো। বাংলাদেশ সেরকম কিছু হতে দেয়নি, মাত্র ১৬ ওভারেই টপকে গেছে লক্ষ্য। আগের ম্যাচের মতো আজও শূন্য রানে আউট হয়ে গেছেন পিনাক ঘোষ। অন্য ওপেনার সাইফ হাসানও বেশিক্ষণ টেকেননি, আউট হয়ে গেছেন ৮ রান করেই। তবে এই টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের মূল কুশীলব নাজমুল হাসান্ত শান্ত ও জয়রাজ শেখ আর কোনো বিপদ হতে দেননি। জয়রাজ অপরাজিত ছিলেন ৩৪ রান করে, শান্ত ইনিংস শেষ করেছেন ১৪ রানে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন