• বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    'দ্বিতীয় বাড়ি', তাই বাংলাদেশ নিয়ে চিন্তাটাও বেশি জেমি ডের

    বাংলাদেশীদের সতর্ক করে এর আগেও বার্তা পাঠিয়েছেন। কয়েকদিন আগে পুরো পরিবার নিয়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনা সৃষ্টি করতে একটি ভিডিও বার্তাও পৌঁছে দিয়েছেন। বাংলাদেশ ফুটবল দলের কোচ জেমি ডে এখন আছেন ইংল্যান্ডে। সেখানেও বাকি সবার মতোই শঙ্কা আর উৎকণ্ঠায় দিন পার করছেন তিনি। তবে জেমি ডেকে ইংল্যান্ডের পাশাপাশি ভাবতে হচ্ছে তার, 'দ্বিতীয় বাড়ি' বাংলাদেশ নিয়েও।

    দুই বছর ধরে জাতীয় দলের কোচ জেমি ডে। দলের দায়িত্ব নিয়েছিলেন ভঙ্গুর সময়ে, এর পর মোটামুটিভাবে দলকে গুছিয়ে এনেছেন। মোটা দাগে সফলও বলা যায় তাকে। বাংলাদেশে তাই জনপ্রিয়তাও তার অনেক। পৃথিবীর দুঃসময়ে নিজ দেশের মতো বাংলাদেশের অবস্থার খোজ-খবর ও নিয়মিত রাখছেন ইংলিশ এই কোচ, "নিজের পরিবার নিয়ে তো চিন্তিত বটেই। তবে বাংলাদেশ আর বাংলাদেশের মানুষকে নিয়েও ভাবছি। বাংলাদেশ তো আসলে আমার দ্বিতীয় বাড়ি।"

    "আমাদের এখানে চিকিৎসা ব্যবস্থা ভালো। কিন্তু তারপরেও এই ভাইরাস থেকে সবাই দূরে থাকতে চাইছে। তাই তো ঘর থেকে বের হচ্ছি না। ঢাকা থেকে এসে তো কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হয়েছে। আসলে এই ভাইরাস থেকে কখন কার কী হয়, এটা নিয়ে বেশ চিন্তায় আছি।"

    ইংল্যান্ডে এখন পর্যন্ত ১৭ হাজারের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। প্রাণ হারিয়েছেন ১ হাজারের বেশি লোক। তবে জেমি ডে লন্ডনের যে শহরে থাকেন সেখানে এখনও এই ভাইরাসের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েননি। সেটি নিয়ে স্বস্তি থাকলেও, ডে জানাচ্ছেন ঘরেই আছেন তারা। বাংলাদেশের মানুষদেরও একই নিয়ম অনুসরণ করতে বলছেন তিনি, "ইংল্যান্ডের অনেক জায়গায় অনেকে আক্রান্ত হলেও আমাদের এখানে এখন পর্যন্ত কেউ আক্রান্ত হয়নি। এটা ভালো দিক। তবে সবাই সাবধানেই আছি, সতর্কতা মেনে চলছি। আমি মনে করি বাংলাদেশেও সতর্কতা মেনে চলা উচিত। তাহলেই সবাই সুস্থ থাকবে।"