• বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    বসুন্ধরা কিংসের নতুন সংযোজন ইরানি ডিফেন্ডার শাফেই

    ইরানি ডিফেন্ডার খালেদ শাফেইকে দলে ভিড়িয়েছে বসুন্ধরা কিংস। বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নদের সঙ্গে শাফেইর চুক্তি হয়েছে এক বছরের। ইরানের ক্লাব সেপাহানের সঙ্গে গত বছর চুক্তি শেষ হয়ে যাওয়ার পর থেকে পেশাদার ফুটবলের বাইরেই ছিলেন শাফেই। দলবদলের জন্য তাই আলাদা কোনো ফি গুণতে হয়নি বসুন্ধরাকে।

    এক আর্জেন্টাইন, দুই ব্রাজিলিয়ানের সঙ্গে চতুর্থ বিদেশি ফুটবলার হিসেবে বসুন্ধরায় যোগ দিতে যাচ্ছেন শাফেই। স্কোয়াডে এশিয়ান কোটার নিয়ম অনুসরণ করতেই মূলত শাফেইকে দলে নিয়েছে বসুন্ধরা। তবে ৩২ বছর বয়সীর ক্যারিয়ার বেশ বর্ণিল। ২০১৭ সালে প্রথম ইরানি ফুটবলার হিসেবে তিনি যোগ দিয়েছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার কে লিগে। যদিও এফসি সিউলে তার সময়টা ভালো যায়নি। ছয় মাসের মাথায়ই সিউল ছেড়ে ইরানে ফিরেছিলেন শাফেই।


    জাতীয় দলের রাডারে না থাকলেও শাফেইর আছে এএফসি চ্যাম্পিয়নস লিগ খেলার অভিজ্ঞতা। সবমিলিয়ে এশিয়ার সর্বোচ্চ ক্লাব টুর্নামেন্টে মোট ২০ বার মাঠে নেমেছেন তিনি। ২০১৪-২০১৭ সাল পর্যন্ত তিন বছর ট্রাক্টর স্পোর্টস ক্লাবের হয়ে দুর্দান্ত খেলেই মূলত আলোতে এসেছিলেন শাফেই। ট্রাক্টরে নিজের প্রথম মৌসুমে ক্লাবকে ইরানিয়ান লিগে রানারস আপ হতে সাহায্য করেছিলেন। এরপর আরও দুই মৌসুম সেখানে কাটিয়ে সিউলে যোগ দেন শাফেই। দক্ষিণ কোরিয়া থেকে ফিরে আবার ইরানের দুই ক্লাব ঘুরে এবার বাংলাদেশ হতে যাচ্ছে তার নতুন ঠিকানা।

    মার্চে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ প্রথমে স্থগিত ও পরে বাতিল হয়ে যাওয়ার পর ডিসেম্বর নাগাদ ফেডারেশন কাপ দিয়ে বাংলাদেশে শুরু হতে পারে ঘরোয়া লিগ। বসুন্ধরা কিংস অবশ্য এরই মধ্যে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে। বাকি তিন বিদেশি হের্নান বার্কোস, রবিনহো আর জোনাথন ফার্নান্দেজরাও যোগ দিয়েছেন তাতে। ঘরোয়া লিগে বিদেশীদের সংখ্যা কমানো নিয়ে শোরগোল শোনা গিয়েছিল। তবে গেল সপ্তাহে পেশাদার লিগ কমিটির সভা শেষে জানানো হয়েছে নতুন মৌসুমে সর্বোচ্চ ৪ জন বিদেশিকে খেলানো যাবে। শাফেইর সঙ্গে চুক্তির প্রাথমিক কথা-বার্তা আগেই সেরে ফেলেছিল বসুন্ধরা কিংস। পেশাদার লিগ কমিটির সভায় সিদ্ধান্তের পর চতুর্থ বিদেশির সঙ্গে চুক্তির খবরটি নিশ্চিত করেছে তারা।   

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন