• ইংল্যান্ডের শ্রীলঙ্কা সফর ২০২০
  • " />

     

    অনুদানের অর্থ তৃণমূল ক্রিকেটে যাক, চাওয়া বাটলারের

    নিজেদের অনুদানের টাকা ইংল্যান্ড ক্রিকেটের তৃণমূল পর্যায়ে যাক, এমন চাওয়া জস বাটলারের। ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড ও 'অন্যান্য খাতে' শীর্ষ পর্যায়ের ক্রিকেটাররা ৫ লক্ষ পাউন্ড অনুদান দিয়েছেন, তবে সেগুলো কোন খাতে খরচ করা হবে, তা নির্দিষ্ট করেননি তারা। 

    বাটলার অবশ্য সবার আগে ভাবছেন তৃণমূলের কথাই, “আমার মনে হয় এমন হলে ক্রিকেটাররা খুশিই হবে। অনেকগুলো ক্ষেত্র আছে, যার ওপর গিয়ে প্রভাব পড়বে- তৃণমূল, যুব পর্যায়ের কোচিং, প্রতিবন্ধীদের খেলা। 

    “খেলোয়াড় হিসেবে আমরা জানি, এই খেলার ক্ষেত্রে কেমন প্রভাব পড়বে। আর গোড়ার দিকের ক্রিকেট ছাড়া তো আমরা কিছুই না আসলে। এবং তাদেরকেই আমরা উৎসাহিত করতে চাই। দ্য হান্ড্রেডের মতো ইভেন্টেরও মূল লক্ষ্য সেটাই, নতুন প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করা, নতুন লোকদের এই খেলার মাঝে আনা।” 

    প্রথমে বেতন কাটার ব্যাপারে ক্রিকেটারদের অ্যাসোসিয়েশন রাজি না থাকলেও পরে ইংল্যান্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা ক্রিকেটাররা নিজেদের উদ্যোগে এই অর্থ অনুদান দিয়েছিলেন। সবাই তৃণমূলে এই টাকা খরচ করার পক্ষে বলেই জানিয়েছেন তিনি, “সবাই তৃণমূল কাঠামোতে এই টাকা খরচ করা হোক, এমন চায় বলে জানি আমি। আমাদের নতুন লোক দরকার, এবং দৃঢ় লোক দরকার। ব্যক্তিগতভাবে তৃণমূলই আমার পছন্দ।” 

    ইসিবিকে অনুদানের পাশাপাশি নিজে বিশ্বকাপজয়ী জার্সি নিলামে তুলেছেন বাটলার। নিলামের ৮ ঘন্টা বাকি থাকতে এর সর্বোচ্চ ডাক উঠেছে প্রায় ৬৬ হাজার পাউন্ড। এ অর্থ যাবে রয়্যাল ব্রম্পটন অ্যান্ড হেয়ারফিল্ড হাসপাতালের দাতব্য খাতে, যা দিয়ে কেনা হবে অক্সিজেন সরবরাহকারী মেশিন। 

    বাটলারের স্ত্রীর এক আত্মীয় সে হাসপাতালে কাজ করেন, এর আগে তারা গিয়ে সেখানকার কর্মব্যবস্থাপনা দেখে এসেছেন। কভিড-১৯ মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ার পর সে হাসপাতাল এই দাতব্য খাত খুলেছে, যেখান থেকে ১ লাখ পাউন্ড সংগ্রহ করা লক্ষ্য তাদের। বাটলারের জার্সি পূরণ করবে এর অনেকটাই। 

    বিশ্বকাপ ফাইনালে ৫০ ওভারের পর সুপার ওভারে এ জার্সি পরে ফিল্ডিং করেছিলেন তিনি, এতে আছে স্কোয়াডের সব সদস্যের অটোগ্রাফও।