• বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    মৌসুমই বাতিল হয়ে গেল বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের

    বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ২০১৯-২০ মৌসুম পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। চ্যাম্পিয়ন ও রেলিগেশন ছাড়াই মূলত লিগ শেষ হয়ে গেল 'নাল অ্যান্ড ভয়েড' পদ্ধতিতে। লিগ বন্ধ হওয়ার আগ পর্যন্ত প্রিমিয়ার লিগের বেশিরভাগ ক্লাবই ৬ রাউন্ড ম্যাচ খেলেছিল। এরপর মার্চের ২৪ তারিখ করোনাভাইরাসের কারণে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত ঘোষণা করা হয় লিগ।


    প্রিমিয়ার লিগের সঙ্গে বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে এই মৌসুমের স্বাধীনতা কাপও। ১৭ মার্চ, রবিবার বাফুফের লিগ কমিটির সভায় নেওয়া হয়েছে এ সিদ্ধান্ত। ক্লাবগুলো করোনাভাইরাসের এই পরিস্থিতিতে লিগ চালিয়ে নিতে চায় না বলে লিগ বাতিলের ঘোষণা এসেছে বলে জানিয়েছেন  কমিটির চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মুর্শেদী।  

    “বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের আক্রান্তের  সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে, মৃত্যু হারও বাড়ছে। সার্বিক দিক বিবেচনা করে আমরা ক্লাবগুলোর সঙ্গে একাধিকবার বসেছি। পরবর্তীতে আমাদের পেশাদার লিগে যে ১৩টি ক্লাব অংশগ্রহণ করে তারা আমাদের চিঠি দিয়ে এই ২০১৯-২০ মৌসুমে খেলতে অপারগতার কথা জানিয়েছে।”  

    “পরিত্যক্ত ঘোষণা হয়েছে যেহেতু তাই চ্যাম্পিয়ন ও রেলিগেশনও থাকছে না।”

    বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের নতুন মৌসুম শুরু হয়েছিল ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে। লিগ শুরুর কিছুদিন পরই বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দেখা দেয়। বাফুফে অবশ্য তখন খেলা চালিয়ে নেওয়ার পক্ষেই সিদ্ধান্ত দিয়েছিল। তবে পরিস্থিতি খারাপ হওয়ার এরপর লিগ বন্ধ করতে একরকম বাধ্যই হয় তারা। লিগ স্থগিত হওয়ার সময় পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ছিল আবাহনী, সমান পয়েন্ট নিয়ে চট্টগ্রাম আবাহনী ছিলে দুইয়ে।

    বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর আবার কবে নতুন মৌসুম শুরু হবে সে বিষয় অবশ্য করোনাভাইরাস পরিস্থিতির ওপর ছেড়ে দিয়েছে বাফুফে। সালাম মুর্শেদী অবশ্য সেপ্টেম্বর-অক্টোবর নাগাদ আবার লিগ শুরুর ইঙ্গিত দিয়েছেন। আর ক্লাবগুলোর  

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন