• ইংল্যান্ডের ভারত সফর
  • " />

     

    টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত উঠলে পিছিয়ে যেতে পারে এশিয়া কাপ

    টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত উঠলে পিছিয়ে যেতে পারে এশিয়া কাপ    

    আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে ভারত উঠলে স্থগিত হয়ে যেতে পারে এ বছরের এশিয়া কাপ। জুনে হওয়ার কথা আছে ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল, সেক্ষেত্রে এশিয়ার কাপের সঙ্গে সূচি সাংঘর্ষিক হয়ে যাবে সেটির। 

    গত বছর কোভিড-১৯ মহামারিতে স্থগিত হয়ে গিয়েছিল এশিয়া কাপ, সেটি হওয়ার কথা ছিল এ বছর। তবে শ্রীলঙ্কা জুনে সেটি আয়োজন করতে চেয়েছিল, ভারতের ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে যাওয়ার জোরালো সম্ভাবনার কারণে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে সেটিই। 

    ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের শেষ টেস্টে হার এড়াতে পারলেই ফাইনালে নিউজিল্যান্ডের সঙ্গী হবে ভারত। সেক্ষেত্রে ২০২৩ সাল পর্যন্ত পিছিয়ে যাবে এশিয়া কাপ, জানিয়েছেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান এহসান মানি, “... এই মুহুর্তে মনে হচ্ছে ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল জুনে হলে এশিয়া কাপ হবে না। এর আগে শ্রীলঙ্কা জানিয়েছিল, তারা জুনে এ টুর্নামেন্ট করতে চায়।” 

    করাচিতে এক প্রেস কনফারেন্সে মানি বলেছেন, এ টুর্নামেন্ট পিছিয়ে যেতে পারে ২০২৩ সাল পর্যন্ত, জানিয়েছে হিন্দুস্তান টাইমস, “সূচি সাংঘর্ষিক হয়ে যাচ্ছে। আমাদের মনে হচ্ছে এ টুর্নামেন্ট হবে না, এবং ২০২৩ সাল পর্যন্ত এটি পিছিয়ে দিতে হবে।” 

    পিসিবির প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খানও জানিয়েছেন এমনই, “মনে হচ্ছে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ফাইনালে চলে গেছে ভারত। এ কারণেই শ্রীলঙ্কায় এবার এশিয়া কাপ হবে না। আমরা চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছি। তবে (এ বছর) না হলে আমাদের ভবিষ্যতের জন্য পরিকল্পনা আছে।” 

    ২০২২ সালে পাকিস্তানের আয়োজন করার কথা এই টুর্নামেন্ট। সাধারণত দুই বছর পরপর হয় এশিয়া কাপ, ২০১২ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত টানা তিনবার এটি হয়েছিল বাংলাদেশে। শেষ আসর হয়েছিল ২০১৮ সালে আরব আমিরাতে, যেটিতে ফাইনাল খেলেছিল বাংলাদেশ। 
     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন