• ভারত-নিউজিল্যান্ড
  • " />

     

    অবশেষে ডিআরএস নিচ্ছে ভারত?

    ভারতের সঙ্গে ডিআরএসের আড়িটা একেবারে শুরু থেকেই। টেস্ট খেলুড়ে নয়টি দেশই ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম বা ডিআরএসকে স্বাগত জানালেও এখনো সে পথে হাঁটেনি ভারত। উল্টো প্রশ্ন তুলেছে প্রযুক্তিটির যথার্থতা নিয়ে। তবে আশা করা যায় শীঘ্রই খুলতে যাচ্ছে গেরো। সবকিছু ঠিক থাকলে আসন্ন পাঁচ টেস্টের ইংল্যান্ড সিরিজেই ডিআরএস প্রযুক্তির শরণ নিতে দেখা যাবে ভারতকে।

    ব্রিটিশ সংবাদপত্র ডেইলি মেইলে প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে ডিআরএস নিয়ে আলোচনা করতে এ সপ্তাহেই ভারত যাচ্ছেন আইসিসির মহাব্যবস্থাপক জিওফ এলারডিস। তাঁর সঙ্গে থাকছেন বল ট্র্যাকিং বিষয়ক প্রযুক্তি হক আইয়ের একজন কর্মকর্তা। তাঁদের সফরের উদ্দেশ্য ভারতকে বুঝিয়ে-সুযিয়ে ডিআরএস প্রযুক্তি গ্রহণে রাজি করানো।

    সাবেক টেস্ট অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি ছিলেন এই প্রযুক্তির ব্যাপারে ভীষণ সন্দিহান। সংবাদমাধ্যমের সামনে একাধিকবার তাঁকে ডিআরএস প্রযুক্তি নিয়ে সংশয় প্রকাশ করতে দেখা গেছে। তবে ভারতের বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও কোচ অনিল কুম্বলে এ ব্যাপারে অনেকটাই উদার। কিছু দিন আগেই এক সাক্ষাৎকারে কোহলি ইঙ্গিত দেন তাঁর সময়কালেই ডিআরএসে যুক্ত হতে পারে ভারত।

    তবে এই প্রযুক্তির কয়েকটি দিক নিয়ে সন্দেহ আছে ভারতের টেস্ট অধিনায়কের, “কিছু বিষয় নিয়ে আমরা কথা বলেছি। এইগুলো নিয়ে আমাদের মিটিংও হয়েছে। কারণ আমাদের মনে হয়েছে কিছু বিষয় নিয়ে আমাদের বিতর্কের সুযোগ রয়েছে। যেমন বল ট্র্যাকিং এবং হক আই। ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি এসব ব্যাপার নিয়ে তর্ক-বিতর্ক করা যায়।”

    বাংলাদেশের সঙ্গে দুই টেস্টের সিরিজের পর ভারত সফরে যাবে ইংল্যান্ড। সেখানে পাঁচ টেস্টের সিরিজের প্রথমটি শুরু হবে ৯ নভেম্বর রাজকোটে।  

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন