• আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৫
  • " />

     

    হাথুরুসিংহের বিরুদ্ধে বিসিবির অভিযোগ

    বিশ্বকাপের সময় সংবাদমাধ্যমের কাছে প্রকাশ্যেই দল নিয়ে নিজের অসন্তোষের কথা জানিয়েছিলেন বাংলাদেশ কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। লেগ স্পিনার জুবায়ের হোসেনকে নিয়ে নির্বাচকদের সঙ্গে তাঁর হালকা বাদানুবাদ হয়েছে বলেও খবর এসেছে প্রচারমাধ্যমে। এসব কিছুই ভালোভাবে নেয়নি বিসিবি। কাল বিসিবি ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান ও সাবেক ক্রিকেটার নাঈমুর রহমান জানিয়ে দিয়েছেন, হাথুরু বোর্ডের আচরণবিধি ভঙ্গ করেছেন। তবে এ ব্যাপারে কোচকে কোনো চিঠি দেওয়া হয়েছে কিনা সেটা এড়িয়ে গেছেন বিসিবির সিইও নাজিমউদ্দিন চৌধুরি।

     

     

     

     

    নাঈমুর কাল বিসিবি সভার পর সরাসরিই বলে দিলেন, "এটা তার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত। এটা ঠিক পরিণত আচরণ হয়নি। কোনো কোচ সরাসরি খেলোয়াড়দের নিয়ে কথা বলতে পারেন না। তিনি এসব ব্যাপারে কথার বলার অধিকারও রাখেন না। সিলেকশন কমিটি দল নির্বাচন করে, ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান সেটা অনুমোদন দেন, আর চূড়ান্ত সম্মতি দেন বোর্ড প্রেসিডেন্ট। এইসব মন্তব্য বোর্ড আর বোর্ড প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধেই যায়।"

     

     

    নাঈমুরের দাবি, হাথুরু নির্বাচকদের ওপর প্রভাব খাটাতে চেয়েছেন, "নির্বাচকদের তাদের কাজ তো করতে দিতে হবে। সাধারণত তারা কোচের মতামত নেন না। সবার নিজের প্রটোকল ও কাজের জায়গা নিয়ে সচেতন থাকা উচিত। কোনো খেলোয়াড় যখন দেখে কোচ তার সম্পর্কে অন্ধ, আরেকজন মনে করতেই পারে কোচ তার সম্পর্কে উদাসীন। এসব আমরা দলে চাই না। "

     

     

     

    নাঈমুরের দাবি, দলের চেয়ে হাথুরু নিজের কৃতিত্বটাই বড় করে দেখছেন, "আমার মনে হয় তিনি নিজেকে সফল বলে প্রমাণ করার জন্যই বেশি ব্যস্ত ছিলেন। সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, দল তার মতো হলে বাংলাদেশ ফাইনালে খেলে ট্রফিও জিততে পারত। এরপর আমি তার সাথে আর কথা বলিনি। বিশ্বকাপের পর তিনি ছুটিতে গেছেন।"

     

    নাঈমুর তাই কোচকে পরামর্শ দিলেন, "কোচ যদি দলে আরও অবদান রাখতে চান, তাহলে সেটার তার বোর্ডকে বা আমাকে বলতে হবে। মিডিয়াকে বলে তো লাভ নেই। কিন্তু তিনি সেটা করেননি। চেইন অব কমান্ড অনুসরণ করলে সবাই ঠিকমতো কাজ করতে পারে। "

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন