• পাকিস্তান-শ্রীলংকা সিরিজ
  • " />

     

    নিজেকে টিভিতে দেখে ভয় পেয়েছিলেন সরফরাজ!

    জুয়াড়িদের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়ে ‘বাহবা’ পেয়েছেন। গত কয়েকদিন ধরেই এ নিয়ে পাকিস্তান মিডিয়ায় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আছেন সরফরাজ আহমেদ। কিন্তু জুয়াড়িদের প্রভাবের কথা ভেবেই হয়তো, এ নিয়ে একটু উদ্বেগের মধ্যেই ছিলেন পাকিস্তান অধিনায়ক। এমনকি টিভিতে নিজেকে এতোবার দেখে ভয় পেয়েছেন বলেও দাবি করেছেন। 

    শ্রীলংকার বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডের আগে কয়েকজন জুয়াড়ি সরফরাজকে ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব দেয়। ব্যাপারটা সাথে সাথেই টিম ম্যানেজমেন্টকে জানান সরফরাজ। পিসিবি এর মাঝেই আইসিসিকে অবহিত করেছে বিষয়টি। খবরটি সংবাদমাধ্যমে আসার পর কয়েকদিন ধরেই সরফরাজকে নিয়ে অন্য যেকোনো সময়ে চেয়ে বেশি আলোচনা হচ্ছে।

    সরফরাজ বলছেন, এত আলোচনায় কিছুটা হলেও ‘শঙ্কিত’ ছিলেন তিনি, “যা হয়েছে সেটা অতীত। ওই মুহূর্তে আমার যা করা উচিত ছিল সেটাই করেছি। ব্যাপারটা টিম ম্যানেজমেন্টকে জানাতে একটুও ভয় পাইনি। বরং টিভিতে আমাকে বারবার দেখেই কিছুটা ভয় কাজ করছিল। আমাকে নিয়ে অনেক বেশি আলোচনা হচ্ছিল। তবে আল্লাহ্‌র রহমতে সব স্বাভাবিক হয়ে আসছে। সিরিজ চলার সময় সবকিছু স্বাভাবিক না হলে সেটার প্রভাব পরে।”

    পিএসএলে স্পট ফিক্সিংয়ে জর্জরিত পাকিস্তান ক্রিকেটে এসবের প্রভাব বেশ ভালোমতোই পড়েছে এই বছর। দলের কোচ মিকি আর্থার বলছেন, এরকম অবস্থা সরফরাজের এই পদক্ষেপ প্রশংসনীয়, “সে যেভাবে ব্যাপারটা সামলেছে সেটা সত্যি প্রশংসনীয়। এটা দলের বাকিদের জন্য একটা উদাহরণ হয়ে থাকবে। আমি বিশ্বাস করি, যখনই আমার দলের কাউকে এরকম প্রস্তাব দেওয়া হবে, তাঁরা সরফরাজের মতো রিপোর্ট করবেন।”

    সামনেই পাকিস্তানে টি-টোয়েন্টি খেলতে যাবে শ্রীলংকা। সরফরাজ বলছেন, ঘরের দর্শকের সামনে সিরিজ জিততে চান, “নিজের দেশে খেলতে পারা আমাদের সবার জন্যই বিশেষ কিছু। যদি আমরা সিরিজ জিততে পারি ও ট্রফি ঘরের দর্শকের সামনে উঁচিয়ে ধরতে পারি সেটার চেয়ে ভালো বোধহয় আর কিছুই হতে পারে না।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন