• নিউজিল্যান্ড-ভারত ওয়ানডে সিরিজ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    জয়েই বিদায় নেহরার

    প্রথম টি-টোয়েন্টি, দিল্লী 
    ভারত ২০২/৩, ২০ ওভার (রোহিত ৮০, ধাওয়ান ৮০, সোধি ২/২৫)
    নিউজিল্যান্ড ১৪৮/৮, ২০ ওভার (ল্যাথাম ৩৯, উইলিয়ামসন ২৮, প্যাটেল ২/২০)
    ফল : ভারত ৫৩ রানে জয়ী 


    একটা উইকেট পেতে পারতেন। কলিন মানরোর ক্যাচটা কাভার থেকে ছুটে নাগালেই পেয়েছিলেন হারদিক পান্ডিয়া, তবে তার পজিশনটা ছিল অস্বস্তিকর। ক্যাচটা নিতে পারলেন না শেষ পর্যন্ত, নিজের শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচে ৪ ওভারে ২৯ রান দিয়ে উইকেটশূন্যই থাকলেন আশীষ নেহরা। তবে বিদায়টা হলো রঙ্গীনই, দিল্লীতে যে নিউজিল্যান্ডকে প্রথম টি-টোয়েন্টিতে একরকম পাত্তাই দেয়নি নেহরার ভারত।  

    টসে হেরে ফিল্ডিংয়ে নেমে ১৭তম ওভারে গিয়ে প্রথম উইকেটের দেখা পেয়েছিল কিউইরা। দুই ওপেনার রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান, সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন দুইজনই। ১৫৮ রানের ওপেনিং জুটি তাদের, ভারতের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে যে কোনও উইকেটেই যা সর্বোচ্চ। ওয়ানডেতে ত্রাস সৃষ্টি করা ট্রেন্ট বোল্টকে নির্বিষ করে দিয়েছিলেন শুরুতেই। ৮০ রান করে ইশ সোধির বলে টম ল্যাথামকে ক্যাচ দিয়ে শেষ ধাওয়ানের ইনিংস, ব্যাটিং অর্ডারে ‘প্রমোশন’ পেয়ে আগে আসা হারদিক পান্ডিয়াও শূন্যতে ফিরলেন সে ওভারেই। 

     

     

    ওপেনিং সঙ্গীর মতো ৮০ রানে শেষ শর্মাও, শেষ পর্যন্ত চার ওভারে ৪৯ রান দেওয়া বোল্টের একমাত্র সান্ত্বনা ওই উইকেটই। ভারতের দুই ওপেনার মিলে মেরেছেন ১৬টি চার, ৬টি ছয়। এরপর বিরাট কোহলির ১১ বলে ২৬ ও ধোনির এক ছয়ে ২ বলে ৭ রানের ইনিংসে ২০০ পেরোয় ভারত। 

    টি-টোয়েন্টিতে এক নম্বরের দল নিউজিল্যান্ড তখনও লড়াই থেকে ছিটকে যায়নি, হোক না লক্ষ্য ২০৩। দুই ওপেনার শুরু করলেন ছিটকে যাওয়ার মতোই, গাপটিল ৪ রানে ক্যাচ দিলেন যুঝভেন্দ্র চাহালের বলে, ৭ রান করে ভুবনেশ্বরের বলে বোল্ড কলিন মানরো। কেন উইলিয়ামসন ও টম ল্যাথাম ইনিংস মেরামতের চেষ্টা করলেন খানিকটা, তবে জয়ের মতো বড় ইনিংস গড়ার আগেই শেষ দুইজনের ইনিংস। একজন শিকার পান্ডিয়ার, আরেকজন চাহালের। এরপর আক্সার প্যাটেলের দুই উইকেট, কিউইদের শেষটা যেন ত্বরান্বিতই করলো শুধু সেটা। মাঝে কোহলির সরাসরি থ্রোতে রান-আউট হলেন হেনরি নিকোলস। 

    শেষ ওভারটা করতে এলেন নেহরা, মুখে সেই চির পরিচিত হাসিটা। ম্যাচশেষে যে হাসিটা অটুট থাকলো। যে হাসিতে মিশে থাকলো শেষ ম্যাচে জয়ের স্বাদ, চোটের সঙ্গে নিত্য লড়াইয়ের পরও নিজ দেশের জার্সি গায়ে খেলার স্বাদ। কোহলি-ধাওয়ান মিলে কাঁধে নিলেন নেহরাকে, এ সম্মানটুকু তো ভারতীয় পেসারের প্রাপ্যই!

    দিল্লী থেকে নেহরা বিদায় নিলেন। শেষবারের মতো বিদায় বললেন ক্রিকেটকেই! 


    আরও পড়ুনঃ 
    অবসর নিচ্ছেন নেহরা 


     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন