• বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    ক্যাচ আর শিশির অজুহাত হিসেবে দেখাচ্ছেন না স্যামি

    শেষ ৫ ওভারে ৫৮ রান রাজশাহী কিংসকে এগিয়ে দিয়েছিল অনেকটা। রংপুরের প্রথম ১০ ওভার শেষেও রাজশাহীর দিকেই বেশি হেলে ছিল ম্যাচের পাল্লা।  কিন্তু এরপর লুক রাইট যেমন দারুণ একটা ক্যাচ নিয়ে ম্যাচে ফিরিয়েছেন রাজশাহীকে, আবার সহজ একটা ক্যাচ ছেড়ে জয়ের সুযোগও হাতছাড়া করেছেন। সেই সঙ্গে পরে বল করে শিশিরের সমস্যা তো ছিলই। তবে হারের কারণ হিসেবে তা বললেও কোনো অজুহাত দাঁড় করাচ্ছেন না রাজশাহী অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি।

    মোহাম্মদ মিঠুন যখন ম্যাচটা বের করে নিচ্ছিলেন, তখন রাইটের দারুণ একটা ক্যাচ ম্যাচে ফেরায় রাজশাহীকে। আবার পরে যখন ক্যাচটা সহজ ক্যাচ ছেড়েছেন বোপারার, তখনও জয়ের জন্য আরও ৪৮ রান দরকার রংপুরের। স্যামি সেটা মনে করিয়ে দিলেও অজুহাত হিসেবে দেখাননি, ‘আমরা সব সময় বলি, ক্যাচ ম্য্যাচ জেতায়। সেটাই আরও একবার টের পেয়েছি। দুইটি গুরুত্বপূর্ণ ক্যাচ ছেড়েছি। আর বোপারাই শেষ পর্যন্ত ম্যাচটা বের করে নিয়েছে। ও আউট হলে ম্যাচটা অন্যরকম হতে পারত। এটাই আসলে ক্রিকেট। আপনি একটা দারুণ ক্যাচ নেবেন, আবার একটা ক্যাচ ছাড়বেন। ভালো ব্যাপার হচ্ছে, ড্রেসিংরুমে কারও ওপর এটা নিয়ে আলাদাভাবে দোষ পড়েনি। আমরা দল হিসেবে হেরেছি, জিতলেও দল হিসেবেই জিতব। আমরা তো হারতেই পারি, কিন্তু আজ রাজশাহী কিংস যেমন খেলেছে তেমন তারা নয়। আমরা এর চেয়ে অনেক ভালো খেলার ক্ষমতা রাখি।’

     

     

    পরে বল করার সময় শিশিরের সমস্যাটা বোঝা গেছে ভালোমতোই। বার বার বোলারদের বল ঘষতে হয়েছে, সমস্যা হয়েছে গ্রিপ করতে। স্যামি অবশ্য এটাও বড় করে দেখতে রাজি নন, ‘হ্যাঁ, শিশিরের তো একটা প্রভাব ছিলই। আগে ব্যাট করে কাজটা অনেক কঠিন।  শিশির না থাকলে কাজটা তো সহজ হতো। কিন্তু এটা আসলে কোনো অজুহাত নয়। পেশাদার হিসেবে এসব আমাদের মেনে নিতে হবে। ব্যাট করা তো কঠিন, আর উইকেটও হারিয়েছি আমরা।’   

     

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন