• বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    ৫ লাখ টাকা জরিমানা তামিমের

    বিপিএলে মিরপুরের উইকেটকে 'জঘন্য' বলেছিলেন তামিম ইকবাল। শুনানির মুখোমুখি হতে হয়েছিল বাংলাদেশের সদ্য সাবেক হওয়া টেস্ট সহ-অধিনায়ককে। এবার শাস্তি পেলেন তিনি। ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে তাকে। তার সহ-অধিনায়কত্ব হারানোর পেছনে একটি কারণ হিসেবেও আছে তার সেই মন্তব্য। 

    বিসিবির ডিসিপ্লিনারি কমিটির শেখ সোহেল জানিয়েছেন, তামিমের মন্তব্যকে বেশ আপত্তিজনক মনে করেছে বোর্ড। জরিমানার অঙ্কটা আরও বাড়তে পারতো, তবে বিসিবি প্রেসিডেন্ট সেটা না বাড়াতে বলেছিলেন। দলে তামিমের অবস্থান বিবেচনাতেও শাস্তিটা 'খুব বড়' হয়নি তার। 

    বিসিবি সভাপতি অবশ্য বেশ ক্ষুণ্ণ হয়েই বলেছেন, 'তামিম যা বলেছে তাতে দেশের ভাবমূর্তি অনেকটাই ক্ষুণ্ণ হয়েছে। এ ধরনের মন্তব্য দেশের ক্রিকেটের জন্যও খুব বিপজ্জনক। সেজন্যই তাকে এই শাস্তি পেতে হয়েছে।' কদিনের আগেই দিল্লীতে ধোঁয়া ও কুয়াশার মধ্যে ভারতের ক্রিকেটারদের খেলতে হয়েছে, সেটি মনে করিয়ে দিয়েছেন নাজমুল হাসান। বলেছেন, তখনও ভারতের কেউ সেটা নিয়ে অভিযোগ করেননি। তার মতে, উইকেট নিয়ে কথা হতেই পারে, তবে আউটফিল্ড বা কিউরেটর নিয়ে সংবাদমাধ্যমে কথা বলা ঠিক হয়নি তামিমের। 

     

     

    কিন্তু আউটফিল্ড বাজে হওয়ার কারণে মিরপুরের উইকেটের দুইটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেতে হয়েছে, সেই দায় কার ওপর বর্তায়? এমন প্রশ্নের জবাবে নাজমুল হাসান দোষটা বৃষ্টির ওপরেই চাপিয়েছেন। আবহাওয়ার ওপরে কারও হাত নেই, তাও মনে করিয়ে দিয়েছেন। কিউরেটর গামিনি ডি সিলভাকে নিয়েও তাই কোনো মন্তব্য করেননি। মিরপুরের ডিমেরিট পয়েন্ট নিয়ে তারা আইসিসিকেও জানিয়েছেন, 'আমরা তাদেরকে বলেছি, তোমরা কেন ডিমেরিট পয়েন্ট দিচ্ছ? এখানে তো আমাদের কোনও হাত নেই, এটা প্রকৃতির ব্যাপার।' 

    মিরপুরের উইকেট নিয়ে কথা বলেছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজাও, তামিমের ওই মন্তব্যের দিনই। তবে শাস্তিটা শুধু তামিম কেন পাচ্ছেন, সেটার বোর্ডের 'অভ্যন্তরীন ব্যাপার' বলে জানিয়েছেন বোর্ড প্রেসিডেন্ট। 

    এমন মন্তব্যের কারণেই তামিমকে টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো কিনা, সে প্রশ্নের জবাবে নাজমুল বলেছেন, 'এটাই একমাত্র কারণ নয়। তবে কয়েকটি কারণের একটি।' 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন