• অ্যাশেজ ২০১৭-১৮
  • " />

     

    অ্যাশেজেই অভিষেক লেম্যান-পুত্রের?

    আসছে অ্যাশেজেই অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলবেন জেক লেম্যান? 

    অস্ট্রেলিয়ার প্রধান কোচ ড্যারেন লেম্যানের ছেলে আরেকবার বার্তা পাঠালেন নির্বাচকদের কাছে। শেফিল্ড শিল্ডে ভিক্টোরিয়ার সঙ্গে ম্যাচে এমসিজিতে মাত্র ৭ রানের জন্য জোড়া সেঞ্চুরি মিস করেছেন সাউথ অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান লেম্যান। বাবার মতোই বাঁহাতি লেম্যান দ্বিতীয় ইনিংসে ৯৩ রানের ইনিংসে মেরেছেন নয়টি চার, দারুণ সব স্ট্রোকপ্লেতে। তবে ফাওয়াদ আহমেদকে জোরের ওপর সুইপ করতে গিয়ে ফাইন লেগে দিয়েছেন ক্যাচ। 

    এর আগে প্রথম ইনিংসে ১৪টি চারে ১০৩ রান করেছিলেন তিনি। দ্বিতীয় ইনিংসে লেম্যানের সঙ্গে বার্তা দিয়েছেন ক্যালাম ফার্গুসনও, অস্ট্রেলিয়ার হয়ে একমাত্র টেস্ট খেলা এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান অপরাজিত আছেন ১৪০ রানে। অ্যাশেজে ছয় নম্বরে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেলার জন্য আরেকটা নাম ট্রাভিস হেড অবশ্য তেমন জোরালো কিছু করে দেখাতে পারেননি, প্রথম ইনিংসে ৬৭ করলেও দ্বিতীয় ইনিংসে আউট হয়েছেন ৪ রান করেই। 

    সব মিলিয়ে ছয় নম্বরে লেম্যানের সম্ভাবনা বেশ উজ্জ্বলই। এদিকে জাতীয় দলের একজন নির্বাচক আবার বাবা ড্যারেন লেম্যান নিজেই। তবে ছেলেকে নিয়ে নির্বাচক প্যানেলে আলোচনার সময় ছিলেন না তিনি, বাকি নির্বাচকরা কী আলোচনা করেছেন তাকে নিয়ে, শোনেননি সেটাও। 

    ‘তারা (নির্বাচকরা) যখন জেককে নিয়ে কথা বলে, আমি থাকি না। কোনও মতও দিই না। তারা জেকের ব্যাপারে কী বলছে, সেটাও জানি না।’ 

    কোচ বা নির্বাচকের চেয়ে যেন পিতা স্বত্তাটাই বেশি প্রাধান্য পায় এক্ষেত্রে তার কাছে, ‘আমি এসবের সঙ্গে যুক্ত নয়। আমি বরং মনে হয় নার্ভাসই হয়ে পড়বো। (জেকের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত এলে)আমি আর কোচ থাকবো না যেন, পানশালায় চলে যাবো তখন!’ 

    এমনিতে চারজন নির্বাচক প্যানেলের মধ্যে মার্ক ওয়াহ অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি দলের জন্য বিশেষায়িত। এরপর লেম্যানকেও বাদ দিলে থাকেন দুইজন, ট্রেভর হনস ও গ্রেগ চ্যাপেল। তারাই ঠিক করবেন, ব্রিসবেনে অ্যাশেজের প্রথম টেস্টেই খেলবেন কিনা লেম্যানপুত্র জেক। 

     

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন