• বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    স্ট্রাইক রেট বাড়ানোর চেষ্টা করছেন মিসবাহ


    যখন ক্রিজে নেমেছিলেন, দল ৩ ওভারে ২১ রানে হারিয়ে ফেলেছে ৩ উইকেট। লক্ষ্য ১৭১ তখনো অনেক দূরের পথ। কিন্তু এক প্রান্ত ধরে রাখলেন বটে, টি-টোয়েন্টির দাবি মিটিয়ে রান রেটের সঙ্গে পাল্লা দিতে পারলেন না। ১৭তম ওভারে যখন আউট হলেন, চট্টগ্রামের পরাজয় তখন অনেকটাই নিশ্চিত। পরে ম্যাচ শেষে চট্টগ্রাম অধিনায়ক মিসবাহ উল হক স্বীকার করেছেন, তাঁর স্ট্রাইক রেট যথেষ্ট ছিল না। এবং সেটা নিয়ে কাজও করছেন।

    প্রথম ম্যাচে ১১ বলে ৬ রান করে আউট হয়েছিলেন। পরের ম্যাচে ৩২ বলে অপরাজিত ৩১ রানে, এবারও স্ট্রাইক রেট ১০০ হলো না। তৃতীয় ম্যাচে এসে যখন পরিস্থিতির দাবিটা আরও জোরালো, মিসবাহ সেই দাবি মেটাতে আরও একবার ব্যর্থ। ম্যাচ শেষে মিসবাহ দাবি করলেন, শেষ পর্যন্ত শুধু খেলতে চেয়েছিলেন।

     

     

    ‘আমি ও সিকান্দার যেভাবে খেলছিলাম, স্রেফ খেলাটা শেষ করার ব্যাপার ছিল। আমরা শেষ করতে পারিনি। শেষ পর্যন্ত ব্যাট করতে পারলে হয় জিততাম আমরা। কিন্তু দুজনেই আউট হয়ে গেছি।’

    সর্বশেষ মে মাসে টেস্ট থেকে অবসরের পর আর টি-টোয়েন্টি খেলেননি। ম্যাচ ফিটনেসের যে ঘাটতি আছে, তাও মেনে নিলেন মিসবাহ, ‘এটি যথেষ্ট নয়। আমি চেষ্টা করছি। উন্নতি হচ্ছে। এই টুর্নামেন্টের আগে খুব বেশি খেলতে পারিনি, খেলার মধ্যে ছিলাম না। এখন খেলছি, উইকেট সময় কাটাতে পেরেছি। আশা করি এরপর আরও উন্নতি হবে।’

    চট্টগ্রামের পরের ম্যাচে মিসবাহ সেই উন্নতি না করলে চাপটা আরও অনেক বেশি বাড়বেই।

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন