• বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ
  • " />

     

    জাকির ম্লান করে দিলেন সাব্বিরকে

    সিলেট ১৪৬/৬, ২০ ওভার (সাব্বির ৪১, গুনাথিলাকা ৪০, ব্রেসনান ২৯, কেসরিক ২/৩২) 
    রাজশাহী ১৫০/৩, ১৭.৩ ওভার (জাকির ৫১*, মুমিনুল ৪২, নাসির ১/২০)
    ফল : রাজশাহী ৭ উইকেটে জয়ী 


    জাকির হাসানের রান তখন ১০ বলে ১৫। ভিমরতি ধরলো তখনোই, নাবিল সামাদকে তেঁড়েফুঁড়ে মারতে গিয়ে ক্যাচ দিলেন মিড-উইকেটে। দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে ফেলা রাজশাহী হোঁচট খেয়েছিল, জাকিরের দেওয়া ক্যাচ ধাক্কার প্রভাবটা বাড়িয়ে দিল আরেকটু। তবে সেটা শুধু ক্ষণিকের জন্যই। সামাদের পা ছিল পপিং ক্রিজের বাইরে, জাকির আউট হলেন না, উলটো পেলেন ফ্রি-হিট! সে ফ্রি হিটে স্লগ সুইপে ছয়, পরের বলে আবার! পরেরটা আগেরটার চেয়েও বড়। 

    এই ফ্রি-হিট ভাগ্যই যেন নিশ্চিত করে দিল, রাজশাহী কিংস হারছে না। কিংসরা জিতলো ১৫ বল বাকি থাকতেই, এবারের আসরে তাদের ২য় জয়। আর ঢাকায় এসে জয়ের স্বাদ পাওয়ার অপেক্ষাটা আরেকটু বাড়লো সিলেটের। 

    ১৪৬ রানের লক্ষ্যে শুরুটা অবশ্য ভালই করেছিলেন মুমিনুল হক ও রনি তালুকদারের নতুন ওপেনিং জুটি। ৯ম ওভারে গিয়ে ৬৫ রানের জুটি ভাঙলো রনির বড় শট খেলার ইচ্ছায়। নাসিরের বলে হলেন স্টাম্পড। সামিট প্যাটেল এলেন আর গেলেন,  এরপরই তো জাকিরের সেই ফ্রি-হিট প্রাপ্তি। 

    আবুলের বেরিয়ে যাওয়া বলে ব্যাট লাগিয়ে পেছনে ক্যাচ দিয়েছেন আরেকবার ভাল একটা ইনিংস খেলা মুমিনুল। তবে মুমিনুলের কাছ থেকে আলোটা কেড়ে নিয়েছেন জাকির। বড় শট খেলেছেন, ওই একবারের বেশি মাথা গরম করেননি, খেলেছেন ‘চিকি’ সব শটও। সব মিলিয়ে ৪ চারের সঙ্গে ৩ ছয়ে ২৬ বলে ৫১ রান করে। শেষ বলে চার মেরে করেছেন ফিফটি। 

    যেমন জাকির ম্লান করে দিয়েছেন সিলেটের সাব্বিরকেও। 

     

     

    সিক্সারসের ইনিংসে ১৩ ওভারে রান ছিল ৭০। পরের ৭ ওভারে হলো ৭৬। তাদেরকে এক লাফে ১৪৬ রানে পৌঁছে দিল সাব্বির রহমানের ২৬ বলে ৪১ রানের ঝড়ো ইনিংস। সঙ্গে ছিলেন টিম ব্রেসনান, ইংলিশ অলরাউন্ডার করেছেন ১৭ বলে ২৯। 

    সিক্সারস অনেক ভরসার ওপেনারদের হারিয়েছে চার ওভারের মাঝেই। ১ম ওভারেই মোহাম্মদ সামির বলে আন্দ্রে ফ্লেচার, ৪র্থ ওভারে মিরাজের বলে ফ্লেচার। ওপরে এসে নুরুল হাসান করতে পেরেছেন ১০। একই অবস্থা নাসিরেরও, সিলেট তখন খেই হারিয়ে ফেলছে শুধুই। 

    দানুশকা গুনাথিলাকা অবশ্য ছিলেন, ৩৭ বলে ৪০ রানের ইনিংস সিলেটকে আগলে রেখেছিল। সে ভিতে দাঁড়িয়েই সাব্বির ফিরলেন ফর্মে, ১ চারের সঙ্গে মারলেন ৪ ছয়। ব্রেসনানের চার-ছয়ের হিসেবটা সাব্বিরের উলটো। 

    তবে রাজশাহীর ইনিংসে তেমন উলটাপালটা কিছু করতে পারলেন না সিলেটের বোলাররা। করতে দিলেন না তো জাকিরই। 


     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন