bracket bracket
bracket bracket
  • ক্রিকেট

রঙ্কির কারণে চাপে আছেন সৌম্য!

কিছুতেই যেন ত্রিশের গেরো থেকে বেরুতে পারছেন না সৌম্য সরকার। এবারের বিপিএলে চার বার আউট হয়েছেন ত্রিশের ঘরে; ৩৮, ৩২, ৩০,৩০ স্কোরগুলো বলছে শুরুটা পেয়েও ইনিংস বড় করে পারছেন না। সেটার কারণ খুঁজতে গিয়ে নিজেই যেন কিছুটা অসহায়। তবে পরে রসিকতা করে বললেন, লুক রঙ্কির কারণে তাঁর নিজের ওপরও কিছুটা চাপ বাড়ছে।

বিপিএলে গত মৌসুমটাও ভালো কাটেনি, রংপুরের হয়ে ১২ ম্যাচে করেছিলেন মাত্র ১৩৫ রান। এবার শুরুটা পেয়েছেন, বেশ কয়েকটা ম্যাচে, কিন্তু কাজে লাগাতে পারছেন না। সেটা নিয়েও সৌম্য যেন কিছুটা অসহায়, ‘আসলে ত্রিশ করে চারটা পাঁচটাতেই আউট হলাম। ওগুলা বড় করতে পারলে আজকে সবাই বলত, সৌম্য রান করেছে। ত্রিশ চল্লিশে তো আসলে হয় না। আমার নিজেই কাছেই খারাপ লাগে, ত্রিশ চল্লিশে আউট হচ্ছি। এটা থেকে বেরুতে যাচ্ছি, কিন্তু কেন পারছি না তা জানি না। পারলে অবশ্যই ভালো হতো। নিজের কাছেও ভালো লাগত, বিপিএলও ভালো যেত।’

কিন্তু এই ব্যাপারটা কি মানসিক? সৌম্য যেন এ নিয়েও কিছুটা দ্বিধান্বিত, ‘না, মানসিক ব্যাপার তো আছে। তবে মনে হয় যে কয়টা ম্যাচে আউট হয়েছি, ত্রিশ হওয়ার পর আসলে স্কোরকার্ড দেখিনি। চিন্তা করেছি, ওই সময় আমার সঙ্গীকে সমর্থন দেওয়ার, নিজের খেলাটা খেলার। এটা ঠিক, ওই সময়টা পার করতে পারলে ভালো হতো। এটা চিন্তার বিষয়। এটা নিয়ে আমার নিজের যে পার্সোনাল কোচ, তাঁর সঙ্গেও কথা বলব।’

সৌম্য না পারলেও লুক রঙ্কির জন্য প্রায় প্রতি ম্যাচেই দারুণ শুরু পাচ্ছে চিটাগং। বিপিএলে রঙ্কির চেয়ে বেশি রান আছে শুধু বোপারা ও লুইসের। সৌম্য রসিকতা করেই বললেন, ‘আমার কাছে মনে হয় ওর জন্যই আমার ওপর চাপ বেশি হচ্ছে। ও যেভাবে ব্যাট করে তাতে আসলে ব্যাটিং না বোলিং উইকেট এটা বোঝা যায় না। আমার যখন দুই রান, দেখা যাচ্ছে ওর ত্রিশ চল্লিশ রান হয়ে গেছে। তখন তো চিন্তার বিষয়, তখন আমার দুইটা বল ডট গেলে মনে হয় ব্যাটিং উইকেট বলে মারতে পারছি না। তারপরও ও যখন মারে আমার মনে হয় এক দুইটা বল ডট গেলেও সমস্যা হবে না।’ এর পরেই অবশ্য সিরিয়াস হলেন একটু, ‘ওর ব্যাটিং থেকে আসলে অনেক কিছুই শেখার আছে। ও অনেক সিনিয়র খেলোয়াড়, অনেক কিছুই নেওয়ার আছে।’