• অ্যাশেজ ২০১৭-১৮
  • " />

     

    এ শুধু কুকের দিন

    চতুর্থ টেস্ট, মেলবোর্ন
    টস- অস্ট্রেলিয়া (ব্যাটিং)
    ৩য় দিনশেষে 
    অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস ৩২৭ অল-আউট (ওয়ার্নার ১০৩, স্মিথ ৭৬, মার্শ ৬১, ব্রড ৪/৫১, অ্যান্ডারসন ৩/৬১)
    ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস ৪৯১/৯(কুক ২৪৪*, রুট ৬৫, ব্রড ৫৬, লায়ন ৩/১০৯, হ্যাজলউড ৩/৯৫)
    ইংল্যান্ড ১ম ইনিংসে ১৬৪ রানে এগিয়ে 


    অ্যালেস্টার কুকের ডাবল সেঞ্চুরি। স্টুয়ার্ট ব্রডের ক্ষীপ্র ফিফটি। ইংল্যান্ডের সারাদিন ব্যাটিং, অস্ট্রেলিয়ানদের একরাশ হতাশা। ক্রিজে এখনও আছেন ওপেনিংয়ে নামা কুক, ১১ নম্বর জিমি অ্যান্ডারসনকে নিয়ে। এমসিজিতে গতকাল যেখান থেকে শেষ করেছিল ইংল্যান্ড, আজ সেখান থেকে শুরু করে শেষ করেছে সেখানে গিয়েই। গতকাল সিরিজে তাদের সেরা দিন ছিল, তখন পর্যন্ত। আজকের দিন ছাড়িয়ে গেছে গতকালকে। মেলবোর্ন টেস্টে আজও ইংল্যান্ডের দিন। আরও নির্দিষ্ট করে বলা যায়, এ শুধুই কুকের দিন! 

     

     

    ব্রিসবেন, অ্যাডিলেড, পার্থ- অ্যালেস্টার কুক থিতু হতে পারেননি কোথাও। এলেন-গেলেন বা এলেন-একটু থাকলেন-তারপর গেলেন ধরনের ইনিংস প্রশ্ন তুলেছিল অনেক বড় বড়। মেলবোর্নের এই ঐতিহাসিক ভেন্যুতে এসে যেন কুক দাঁড়িয়েছিলেন ইতিহাসের বাঁকে। কুক সেখানে দাঁড়িয়ে খেলছেন মহাকাব্যিক এক ইনিংস। প্রায় দশ ঘন্টা হয়ে গেল, অ্যালেস্টার কুক এখনও ক্রিজে! জ্যাকসন বার্ডকে স্ট্রেইট ড্রাইভে চার মেরে ক্যারিয়ারের পঞ্চম ডাবল সেঞ্চুরি পূরণ করেছেন। 

    এমসিজিতে কুকের ইনিংসটিই এখন কোনও সফরকারি ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ ইনিংস, ১৯৮৪ সালে ভিভ রিচার্ডসের ২০৮ রানের ইনিংসকে ছাড়িয়ে গেছে এটা। টেস্টে সর্বোচ্চ রান-সংগ্রাহকের তালিকায় কুক ছাড়িয়ে গেছেন মাহেলা জয়াবর্ধনে, শিবনারাইন চন্দরপল ও ব্রায়ান লারাকে। ২৪৪ রানে অপরাজিত আছে্ন, অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে কুকের এটিই সর্বোচ্চ, এর আগে ব্রিসবেনে করেছিলেন ২৩৫। এই অ্যাশেজেও কুকের ইনিংসই এখন সবার ওপরে। 

     

     

    কুকের এই প্রত্যাবর্তনের গল্প লেখা ইনিংসে যেন ফিরেছেন স্টুয়ার্ট ব্রডও। ইংল্যান্ডের ‘লেজ’ নিয়ে কথা হয়েছে অসংখ্য, যেন কোনো জীবাণুর আক্রমণে খসে খসে পড়েছে সেটা। ব্রড আজ সেই জীবাণুর অ্যান্টিবায়োটিক আনলেন। ৩৭৩ রানের ৮ম উইকেট পড়ে যাওয়ার পর কুকের সঙ্গে গড়লেন ঠিক ১০০ রানের জুটি। অস্ট্রেলিয়ানদের শর্ট বল নিয়ে খেললেন ব্রড, দারুণ টাইমিংয়ের প্রদর্শনী ছিল তার ব্যাটিংয়ে। উসমান খাওয়াজার ‘হয়েছে কি হয়নি নির্ণয় করা কঠিন’ ধরনের ক্যাচে ইনিংস শেষ করার আগেই ফিফটি পেয়েছেন। 

    কাল দিনশেষে কুকের সঙ্গে ছিলেন জো রুট, ইংলিশ অধিনায়ক আজ ফিফটি পেয়েছেন, ৬১ রানে কামিন্সের বলে পুল করতে গিয়ে স্কয়ার লেগে দিয়েছেন লায়নকে ক্যাচ। আরেকবার ইনিংস বড় করতে ব্যর্থ তিনি। তবে রুটের পরও কুকের সঙ্গীর অভাব হয়নি, মোটামুটি সবাই থেকেছেন ক্রিজে কমবেশি। ডেভিড মালান হ্যাজলউডের বলে এলবিডাব্লিউ হয়েছেন, তবে তিনিও গতকাল জেমস ভিনসের মতো রিভিউ নেননি। অথচ রিপ্লে দেখালো, শুধু ইমপ্যাক্ট অফস্টাম্পের বাইরে ছিল না, মালানের ব্যাটেও লেগেছিল বল! নতুন ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের রিভিউ নিতে উৎসাহী করার একটা ক্লাস বোধহয় জরুরী এখন। 

    জনি বেইরস্টো আর মইন আলি, দুজনই শিকার ন্যাথান লায়নের। আলগা শট খেলেছেন দুজনই, মইনের ভুলে যাওয়ার মতো এই অ্যাশেজটা দীর্ঘই হচ্ছে শুধু। ক্রিস ওকস শর্ট বলে ধোঁকা খেয়েছেন, টম কারানকে রিভিউ নিয়ে কট-বিহাইন্ড করেছেন পেইন-হ্যাজলউড-স্মিথরা। 

    সেশন থেকে সেশনে ইংল্যান্ডের রানের গতি বেড়েছে, বেড়েছে আধিপত্য। তবে সবকিছুর পরে, এ দিনের গল্পটা শুধুই কুককে ঘিরে। দিনের শেষ বলের আগের বলে দারুণ কাভার ড্রাইভে মেরেছেন চার, এই দিন বা দুই দিন ধরে চলা ইনিংসজুড়েই কুক সাজিয়েছেন এমন সব শটের পসরা। কালও শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে অপরাজিত থাকলে মাইক আথারটনের প্রায় ২০ বছর পর ক্যারি থ্রু দ্য ইনিংসে ব্যাট করা দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হবেন কুক। স্টিভ স্মিথ গতকাল একটা কঠিন সুযোগ ছেড়েছিলেন তার, আজও ছেড়েছেন একটা। 

    তবে তাতে কুক ম্লান হচ্ছেন না এতটুকুও। দিনের খেলা শেষে সব অস্ট্রেলিয়ানই অভিনন্দন জানিয়ে গেছেন কুককে। অভিনন্দন জানিয়েছে পুরো এমসিজি। 

    আজ কুকের অভিনন্দন পাওয়ারই দিন। আজ শুধু কুকেরই দিন। 
     

     

     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন