• অস্ট্রেলিয়ান ওপেন
  • " />

     

    ৩৬- এ এসে ফেদেরারের ২০

    ৩৬- এ এসে ফেদেরারের ২০    

    প্রতিপক্ষের চেয়ে তিনি বয়সে বছর সাতেকের বড়। কিন্তু রজার ফেদেরারের কাছে বয়স তো নিছকই এক সংখ্যা। মেলবোর্নের ক্রমেই বাড়তে থাকা তাপমাত্রায় বাড়ল তার গ্র‍্যান্ডস্ল্যাম সংখ্যাটাও। ৩৬ বছর বয়সে এসে সুইস মায়েস্ত্রো খেললেন রেকর্ড ৩০তম ফাইনাল, জিতলেন আরেকটা রেকর্ড ২০তম গ্র‍্যান্ডস্ল্যাম। উত্তপ্ত আবহাওয়ায় ফেদেরার থাকলেন শান্ত, ক্রোয়েশিয়ান মারিন চিলিচকে হারালেন ৬-২, ৬-৭ (৫-৭), ৬-৩, ৩-৬, ৬-১ সেটে।



    প্রথম সেট প্রায় অনায়াসেই জিতেছেন, পরেরটা হেরেছেন টাইব্রেকে। তিন নম্বর সেট হারলেও চতুর্থ সেট জিতে ম্যাচে সমতায় ফেরেন চিলিচ। তবে চ্যাম্পিয়নশিপ নির্ধারণী সেটে ফেদেরার ফিরলেন দারূনভাবে। চ্যাম্পিয়নশিপ পয়েন্টটা এসেছে ‘এইস’-এ, চিলিচ চ্যালেঞ্জ করেছিলেন, তবে সেটা প্রমাণিত হয়েছে ‘ইন’ হিসেবেই।

     

    কান্না আটকাতে পারেননি ফেদেরার, রড লেভার অ্যারেনায় আবেগ ছুঁয়ে গিয়েছে নিশ্চয়ই আরও অনেককেই। সে আবেগটা যদি আপনার ওপরও এসে ভর করে, আপনি জানবেন, আপনি সৌভাগ্যবান।ফেদেরার যে আজও চমৎকার, ফেদেরার যে চমক দিতে পারেন এখনও! আর আপনি সাক্ষী সেটার।

    ফেড এক্সপ্রেসের যাত্রা চলছে, যাতে চেপে অদ্ভুত এক আবেগোযাত্রায় ছুটে চলেছি আমরাও,
    ছুটে চলেছেন আপনিও!

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন