• ক্রিকেট

তামিম যা করেছে সেটায় অনেক সাহস দরকার: ম্যাথিউস

৪৬তম ওভারের পঞ্চম বলে যখন মুস্তাফিজুর রহমান ফিরলেন, বাংলাদেশের ইনিংস শেষ বলেই ধরে নিয়েছিলেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ও পুরো শ্রীলংকা। সবাইকে অবাক করে দিয়ে ক্রিজে নামলেন ইনজুরিতে পড়ে এশিয়া কাপ থেকে ছিটকে যাওয়া তামিম ইকবাল। ম্যাথিউস বলছেন, তামিম যা করেছেন সেটায় অনেক বেশি সাহসের দরকার।

নবম উইকেট পড়ার পর মুশফিকুর রহিমকে সঙ্গ দেওয়ার জন্য নেমেছিলেন তামিম। কার্যত এক হাতে ব্যাটিং করে প্রশংসায় ভাসছেন তিনি। ম্যথিউসও মুগ্ধ তামিমে, ‘তামিম কাজটা করে অনেক সাহসিকতার পরিচয় দেখিয়েছে। শেষের দিকে মুশফিক ক্রিজে থাকা অবস্থায় তামিম নেমেছিল, যা তাদের ২০-৩০ রান যোগ করতে সাহায্য করেছে। তামিম অনেক সাহসের পরিচয় দিয়েছে এক হাতে ব্যাট করতে নেমে। এভাবে ব্যাট করা কখনই সহজ নয়।’

ম্যাচের শুরুতে হয়ত ভাবেননি, শেষটা এমন হবে। শুরুর দিকে দারুণ বোলিং করা শ্রীলংকা শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশের কাছে হেরেছে ১৩৭ রানের বিশাল ব্যবধানে। ম্যাথিউস এই হারের পেছনে দায়ী করলেন নিজেদের ব্যাটিংকেই, ‘ব্যাটিং আমাদের হারের প্রধান কারণ। লাসিথ আজ দারুণভাবে শুরু করেছিল। মাত্র তিন রানেই তিন উইকেট শিকার করেছিল সে, আর সেই জায়গা থেকে আমরা তাদের লাগামছাড়া হতে দিয়েছি। আর ফিল্ডিং এর সময় আমরা বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ ক্যাচ ফেলেছি। ২৬০ রান এই উইকেটে তাড়া করে জেতার মত স্কোর ছিল। উইকেট খুবই ভাল ছিল। কিন্তু ব্যাটিং এর সময় আমরা অনেক বাজে সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

সেমিফাইনালে খেলতে হলে পরের ম্যাচে আফগানিস্তানকে হারাতেই হবে। বাঁচা মরার সেই লড়াইয়ে জয়ের আশা ছাড়ছেন না ম্যাথিউস, ‘আমরা অবশ্যই এখন চাপের মুখে, আমাদের এখন একটাই লাইফ লাইন আছে। সামনের ম্যাচটা আমাদের জন্য বাঁচা মরার লড়াই। আমাদের দ্রুত প্রস্তুত হতে হবে। আমাদের একদিন অনুশীলন করে পরের দিন আবুধাবিতে ম্যাচ খেলতে হবে। আমাদের দ্রুত আজকের ম্যাচের ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে সামনের ম্যাচের দিকে মনোযোগ দিতে হবে।’

জিততে হলে ধারাবাহিকতা ফিরিয়ে আনতে দলে, মানছেন ম্যাথিউস, ‘আমরা ধারাবাহিক নই। একদিন খুব ভাল করছি তো আরেকদিন খুবই বাজে, এমন টুর্নামেন্টে এই পারফরম্যান্স দেওয়া যাবে না। আমি আগেও বলেছি, এই টুর্নামেন্টে এক ম্যাচ হারা মানেই সিরিজে বেঁচে থাকা কঠিন হয়ে যায়। প্রথম ম্যাচে যেটা আমরা করতে পারি নি, দ্রুত উইকেট তুলে নেয়ার পরও আমরা তাদের বড় স্কোর গড়তে দিয়েছি।’