• অ্যাশেজ
  • " />

     

    মইনকে 'ওসামা' বলায় ক্ষিপ্ত ছিলেন সতীর্থরা

    মইনকে 'ওসামা' বলায় ক্ষিপ্ত ছিলেন সতীর্থরা    

    ২০১৫ অ্যাশেজে মইন আলিকে “ওসামা” বলার পর অস্ট্রেলিয়ান সেই ক্রিকেটারের ওপর ক্ষিপ্ত ছিলেন মইনের সতীর্থরা, এমনকি অফিশিয়াল অভিযোগও জানাতে চেয়েছিলেন। সে সময় মইনই তাদের নিবৃত্ত রেখেছিলেন বলে জানিয়েছেন ইংল্যান্ড কোচ ট্রেভর বেইলিস। 

    সম্প্রতি নিজের প্রকাশিতব্য আত্মজীবনীতে এ ঘটনা উল্লেখ করেছেন মইন। সে সময় বেইলিস অস্ট্রেলিয়ার কোচ ড্যারেন লেম্যানকেও বিষয়টি জানিয়েছিলেন। অবশ্য মইনের প্রকাশ্য মন্তব্যের পর এ ব্যাপারে তদন্ত করতে যাচ্ছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ক্রিকেটারদের আচার-আচরণের ব্যাপারে সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কঠোর হচ্ছে বোর্ডটি। 

    তবে লেম্যানকে বলার পর তিনি সেই ক্রিকেটারকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করে উত্তর পেয়েছিলেন, তিনি মইনকে “পার্ট-টাইমার” বলেছেন, “ওসামা” নয়। লেম্যান এরপর আর কিছু জানাননি বেইলিসকে। আর মইনও ব্যাপারটাকে এগিয়ে নিতে চাননি পরে আর। 

    “সে এগুতে চায়নি আর”, সিডনির ডেইলি টেলিগ্রাফকে বলেছেন বেইলিস, “সে খুবই নম্রভাবে কথা বলা একজন। অন্যদের জন্য খুব একটা সমস্যা তৈরি করতে চায় না। সে সময় অন্য ক্রিকেটাররা এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে চেয়েছিল, তবে তাদের সঙ্গে কথা বলে মইনই তাদের থামিয়েছিল সে সময়।” 

    ব্যাপারটাকে এখন আর বড় করে দেখতে চান না তিনি, “এ বিষয়ে আর কিছু করতে চাই না। তিন বছর হয়ে গেছে, এখন সামনে এগুনোর সময়। সবাই এটা ভুলে গেছে, সামনে এগিয়েছে। এটা এখন আর বড় বিষয় না।” 

    “এটা দারুণ প্রতিদ্বন্দ্বিতার একটা সিরিজ ছিল। মাঠে কী ঘটেছিল, এ ব্যাপারে কোনও রিপোর্ট করা হয়নি, আমরাও তাই ব্যাপারটা সেখানেই রেখে এসেছি।” 

    মইন পরে সেই ক্রিকেটারকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন এ ব্যাপারে। তবে তিনি অস্বীকার করে বলেছিলেন, “আমি জানি তুমি কী ভাবছো। আমি সেটা বলিনি। আমার মুসলিম বন্ধু আছে। আমার ভাল বন্ধুদের কয়েকজন মুসলিম।” 

    ঘটনার তিন বছর পেরিয়ে গেলেও আইসিসিকে অফিশিয়ালি জানানো হলে এটা নিয়ে তদন্ত করতে পারে তারা। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন