• পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড সিরিজ
  • " />

     

    • পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড সিরিজ

    আজহার-শফিকের জোড়া সেঞ্চুরির দিনে সমারভিল-চমক

    তৃতীয় টেস্ট, আবুধাবি
    তৃতীয় দিনশেষে
    নিউজিল্যান্ড ১ম ইনিংস ২৭৪ (উইলিয়ামসন ৮৯, ওয়াটলিং ৭৭, বিলাল ৫/৬৫, ইয়াসির ৩/৭৫) ও ২য় ইনিংস ২৬/২*
    পাকিস্তান ১ম ইনিংস ৩৪৮ (আজহার ১৩৪, শফিক ১০৪, সমারভিল ৪/৭৫, বোল্ট ২/৬৬) 


    দ্রুততম বোলার হিসেবে ২০০ উইকেট নেওয়ার জন্য ইয়াসির শাহকে অপেক্ষায় রাখলেন উইলিয়াম সমারভিল, নাইটওয়াচম্যান হিসেবে নেমে প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও দিলেন দৃঢ়তার ইঙ্গিত। অভিষিক্ত সেই সমারভিলেই আবুধাবিতে ম্যাচে ফিরেছিল নিউজিল্যান্ড, আজহার আলি ও আসাদ শফিকের জোড়া সেঞ্চুরির পরও পাকিস্তানের লিড ৭৪ রানে আটকে দেওয়া বড় কৃতিত্ব এই অফস্পিনারেরই। 

    প্রথম সেশনে কোনও উইকেট হারায়নি এদিন পাকিস্তান, আজহার আলি পেয়েছেন মিসবাহ-উল-হক ও ইউনুস খান অবসর নেওয়ার পর প্রথম সেঞ্চুরি, ক্যারিয়ারে ১৫তম। দ্বিতীয় সেশনে ক্যারিয়ারের ১২তম সেঞ্চুরি পেয়েছেন শফিকও। দুজনের ২০১ রানের জুটি ভেঙেছেন সমারভিল, তাকে সুইপ করতে গিয়ে ক্যাচ দিয়েছেন আজহার। তার আগে এই ডানহাতি করেছেন ২৯৭ বলে ১২ চারে ১৩৪ রান। আজাজ প্যাটেলের আর্ম-বল মিস করে এলবিডব্লিউ শফিক করেছেন ১০৪ রান। 

    ৩১২ রানে ৫ উইকেট নিয়ে চা-বিরতিতে গিয়েছিল পাকিস্তান, ততক্ষণে তাদের জন্য বড় লিডের ভিতটা গড়ে গেছেন আজহার-শফিক। তবে এরপরের ঘটনা বদলে দিল সব, যেসব ঘটনায় মিশে থাকলো কৌতুকও। কৌতুকটা মূলত আউটের ধরনে। সমারভিলের বলে কাট করতে গিয়ে বাবর আজম হলেন বোল্ড, তার আগে বল লাগলো তার ব্যাটে, ব্যাট থেকে এক জুতার পেছনের অংশে, সেখানে থেকে আরেক পা হয়ে স্টাম্পে। ইয়াসির শাহ তো হারিয়ে ফেললেন জুতাই, ডাবলস নিতে গিয়ে এক রানের পরই সেটা খুলে গেল তার পা থেকে। তিনি এক পায়ে না পারলেন পরের রানটা পূর্ণ করতে, না পারলেন ওপাশে থাকা অধিনায়ককে ফিরিয়ে দিতে। 

    এই দুইয়ের মাঝে ফিরেছেন বিলাল আসিফ, এলবিডব্লিউ থেকে রিভিউ নিয়ে বাঁচার পরই প্যাটেলের বাইরের বলে ড্রাইভ করতে গিয়ে স্লিপে ক্যাচ দিয়ে। সমারভিলের বলে ইনসাইড দ্য লাইনে খেলতে গিয়ে বোল্ড হয়েছেন হাসান আলি। টেইল-এন্ডকে নিয়ে একা লড়াই চালিয়ে যেতে পারেননি সরফরাজ আহমেদ, শেষ পর্যন্ত সমারভিলের চতুর্থ শিকার পরিণত হয়েছেন তিনি মিড-উইকেটে ক্যাচ দিয়ে। 

    ব্যাটিংয়ে নেমে অবশ্য অস্বস্তিতে পড়েছে নিউজিল্যান্ডও। শাহিন শাহ আফ্রিদির ভেতরের দিকে ঢোকা দারুণ বলে এলবিডব্লিউ হয়েছেন জিট রাভাল, ইয়াসিরকে জোরের ওপর স্লগ করতে গিয়ে ধরা পড়ে ধৈর্যহীনতার পরিচয় দিয়েছেন টম ল্যাথাম। তিন দিন শেষে তাই আবুধাবি ইঙ্গিত দিচ্ছে আরও রোমাঞ্চের, শেষ দুই দিনে!