• অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলংকা সিরিজ
  • " />

     

    বিশ্বকাপের আগে 'বিশ্রাম' চান না কামিন্স

    বিশ্বকাপের বাকি আর চার মাস। ক্রিকেট বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে বিরাট কোহলির মতো অনেক ক্রিকেটারকেই মাঝে সাঝে বিশ্রামে পাঠাচ্ছে টিম ম্যানেজমেন্ট। তবে এসবের মাঝে একটু ব্যতিক্রম অস্ট্রেলিয়ার পেসার প্যাট কামিন্স। কামিন্স বলছেন, ছন্দ ধরে রাখতে বিশ্বকাপের আগে কোনো বিশ্রাম চান না তিনি।

     

     

    ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই ইনজুরি বারবার হানা দিয়েছে। তবে ইনজুরি কাটিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই অস্ট্রেলিয়ান বোলিং লাইনআপের অন্যতম ভরসা কামিন্স। সবশেষ শ্রীলংকার বিপক্ষে ক্যারিয়ারের প্রথমবারের মতো ম্যাচে দশ উইকেট নিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে জয় এনে দিয়েছেন তিনি। টেস্ট দলের পাশাপাশি ওয়ানডে দলেও নিয়মিত হয়ে বিশ্বকাপ খেলতে চান কামিন্স। 

    কামিন্স তাই বিরতিহীনভাবেই খেলতে চান বিশ্বকাপ পর্যন্ত, ‘শ্রীলংকার বিপক্ষে টেস্টের পর বিশ্বকাপের আগে আরো দুটি ওয়ানডে সিরিজ আছে। আশা করি দুটিতেই আমি খেলব। টেস্টের চেয়ে ওয়ানডেতে ধকল কম। কিছুদিন আগেও দুই সপ্তাহের মতো বিশ্রাম পেয়েছি, বেশ ফুরফুরে মেজাজেই আছি। বিশ্বকাপের আগে আর বিশ্রামের দরকার নেই। বিশ্বকাপের পর অ্যাশেজও আছে। আমি অ্যাশেজ পর্যন্ত নিয়মিত খেলতে চাই।’

    ঝাই রিচার্ডসন আসার পর থেকেই খুব একটা নতুন বল পাচ্ছেন না কামিন্স। এ নিয়ে অবশ্য তার খুব একটা আক্ষেপ নেই, ‘আমি নিজের দায়িত্বটা নিয়েই খুশি। আর রিচার্ডসন, স্টার্ক নতুন বলে দারুণ বোলিং করছে। কয়েক ওভার পর বোলিংয়ে আসা নিয়ে আমার আপত্তি নেই। দলের জয়ে অবদান রাখতে পারাটাই আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।’

    বিশ্বকাপের আগে ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ আছে অস্ট্রেলিয়ার। সেই দুই সিরিজে ভালো করে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকবেন, কামিন্সের প্রত্যাশা এমনটাই।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন