• অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলংকা সিরিজ
  • " />

     

    বার্নসে পুড়লো শ্রীলঙ্কা, হেডে নোয়াল মাথা

    ক্যানবেরা টেস্ট
    প্রথম দিনশেষে 
    অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস ৩৮৪/৪* (বার্নস ১৭২*, হেড ১৬১, ফার্নান্ডো ৩/৯৯) 


    সেই ১৯৯২ সালে আন্তর্জাতিক অভিষেক হয়েছিল ক্যানবেরার মানুকা ওভালের। অপেক্ষা ছিল টেস্ট অভিষেকের। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে টেস্টে এর আগে শেষ সেঞ্চুরি করেছিলেন উসমান খাওয়াজা, গত অক্টোবরে পাকিস্তানের বিপক্ষে। সময়ের হিসেবে প্রথম খরাটা ২৭ বছরের, দ্বিতীয়টি মাস তিনেকের। তবে অপেক্ষা যেন দুটিরই দীর্ঘ। সেটি কাটলো। ক্যানবেরার অভিষেকের উপলক্ষ্যটা রাঙিয়ে দিলেন জো বার্নস, এরপর ট্রাভিস হেড। দুজনের সেঞ্চুরি ও ৩০৮ রানের রেকর্ড জুটিতে প্রথম দিনই পিষ্ট হয়েছে শ্রীলঙ্কা। হেড ১৬১ রান করে ফিরলেও ডাবল সেঞ্চুরি উঁকি দিচ্ছে ১৭২ রানে অপরাজিত থাকা বার্নসকে। 

     

     

    অথচ পাঁচ টেস্টের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন শ্রীলঙ্কার পেস আক্রমণের জন্য শুরুটা হয়েছিল স্বপ্নালু। অস্ট্রেলিয়া প্রথম ৩ উইকেট হারিয়েছিল ২৮ রানেই। বিশ্ব ফার্নান্ডোকে কাট করতে গিয়ে পয়েন্টে ক্যাচ দিয়েছিলেন মার্কাস হ্যারিস, পা না নড়িয়ে ব্যাট চালিয়ে শুন্যতেই দ্বিতীয় স্লিপে ক্যাচ দিয়েছেন উসমান খাওয়াজা। টেস্টের নিজের চতুর্থ বলেই সফল হয়েছিলেন চামিকা করুনারত্নে, ৬ রান করে মার্নাস ল্যাবুশেন হয়েছেন কট-বিহাইন্ড। 

     

    শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে রেকর্ড জুটি গড়েছেন বার্নস-হেড/ক্রিকইনফো

    তবে সে পর্যন্তই। শ্রীলঙ্কান পেসারদের অনভিজ্ঞতা এরপর ফুটে উঠেছে ধীরে ধীরে। বার্নস ও হেড ধীরে ধীরে পিষ্ট করেছেন তাদের। ২৬ ওভারে অস্ট্রেলিয়া ১০৩ রান নিয়ে গেছে লাঞ্চে। চা-বিরতিতে ৩ উইকেটে স্কোর ছিল ২২০ রান। সিম-সুইং ফুরিয়ে গেছে, শ্রীলঙ্কান বোলাররা হয়ে উঠেছেন আরও নখদন্তহীন। ৫৭ থেকে ৭৩তম ওভারে বার্নস ও হেড মিলে তুলেছেন ১১০ রান, ওভারপ্রতি ৬.৮৮ হারে!

    ১৪৭ বলে ১৬ বাউন্ডারিতে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছেন বার্নস, যা তার ক্যারিয়ারের চতুর্থ। এ গ্রীষ্মে প্রথম অস্ট্রেলিয়ান সেঞ্চুরিও এটি। হেড সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছেন ১৫৫ বলে, সে সময় তিনি মেরেছিলেন ১৪টি চার। টেস্টে এটি প্রথম সেঞ্চুরি তার। শেষ পর্যন্ত ফার্নান্ডোর বলে আড়াআড়ি খেলতে গিয়ে মিস করে এলবিডব্লিউ হয়েছেন তিনি, ২১ চার ও ১ ছয়ে ১৬১ রান করে। তার উইকেট দিয়ে ভেঙেছে ৩০৮ রানের জুটি। অস্ট্রেলিয়া ও শ্রীলঙ্কার টেস্টে যে কোনও উইকেটে এটি অস্ট্রেলিয়ার সর্বোচ্চ রানের জুটি। এর আগে ১৯৮৯ সালে হোবার্টে স্টিভ ওয়াহ ও ডিন জোনসের ৬ষ্ঠ উইকেটে ২৬০ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিই ছিল সর্বোচ্চ।

    হেড ফিরলেও খেই হারাননি বার্নস। যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন কুরটিস প্যাটারসন, বার্নসের সঙ্গে তার জুটি অবিচ্ছিন্ন ৪৮ রানে। সে জুটি অবশ্য ভাঙতে পারতো শুরুতেই, শর্ট লেগে তার ক্যাচ ফেলেছেন লাহিরু থিরিমান্নে। এর আগে আরও তিনটি ক্যাচ ফেলেছেন শ্রীলঙ্কান ফিল্ডাররা, ৩৪ রানে বার্নসের পর হেডের আরও দুইটি। 

    বোলিং বা ফিল্ডিংয়ে আজ স্রেফ শ্রীলঙ্কার দিন ছিল না, যেটি ছিল বার্নস-হেডদের।