• কোপা দেল রে
  • " />

     

    রিয়াল 'সম্মানের' সাথে হেরেছে: সোলারি

    ৬৯ মিনিটে যখন রাফায়েল ভারান আত্মঘাতী গোল করলেন, তখনই অনেকটা নিশ্চিত হয়ে গেলো রিয়াল মাদ্রিদের বিদায়। ডাগআউটে দাঁড়ানো রিয়াল কোচ সান্তিয়াগো সোলারির মুখভঙ্গিটাই বলে দিচ্ছিল সবকিছু। শেষ পর্যন্ত ঘরের মাঠে বার্সেলোনার কাছে ৩-০ গোলে হেরেই কোপা ডেল রের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিল রিয়াল। ম্যাচ শেষে সোলারি অবশ্য বলছেন, ‘সম্মানের’ সাথেই বিদায় নিয়েছে তাঁর দল।

    সেমির প্রথম লেগে ক্যাম্প ন্যুতে ১-১ গোলে ড্র করেছিল দুই দল। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে সাম্প্রতিক সময়ে বার্সার রেকর্ড ভালো থাকলেও ঘরের মাঠে জয়ের ব্যাপারে যথেষ্ট আশাবাদী ছিল রিয়াল।

    বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে ফর্মে না থাকা লুইস সুয়ারেজ সেটা হতে দেননি। তাঁর জোড়া গোল ও ভারানের আত্মঘাতী গোলে ৩-০ গোলে জিতেই টানা ষষ্ঠবারের মতো কোপার ফাইনালে উঠেছে বার্সা। দুই লেগ মিলিয়ে রিয়াল হেরেছে ৪-১ ব্যবধানে। আরেকটি এল ক্লাসিকো হারের পরেও সোলারি বলছেন, ভালো খেলেই হেরেছে তাঁর দল, ‘আমরা সবকিছুই ভালোভাবে করেছি, শুধু গোলটাই আসেনি! এই হারটা অবশ্যই ‘সম্মানের’। তবে এভাবে সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিতে কষ্ট লাগছে। সবাই চেয়েছিল আমরা ফাইনাল খেলে শিরোপা জিতি। এবার হয়নি, পরেরবার আবার চেষ্টা করবো।’

    ভিনিসিয়াস জুনিয়রের দারুণ নৈপুণ্যে ম্যাচের প্রথমার্ধে নিয়ন্ত্রণ ছিল রিয়ালের হাতেই। বেশ কয়েকটি সুযোগ পেলেও বল জালে জড়াতে পারেননি তারা। এটাই সবচেয়ে বেশি পোড়াচ্ছে সোলারিকে, ‘প্রথমার্ধে অনেক সুযোগ নষ্ট করেছি আমরা। দ্বিতীয়ার্ধে যখন ১-০ তে পিছিয়ে গেলাম, এরপরও ম্যাচে ফিরতে পারতাম। ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ বেশিরভাগ সময় আমাদের হাতেই ছিল, তাও আমরা গোল করতে পারিনি।’

    তিনদিন পর এই বার্নাব্যুতেই লা লিগার ক্লাসিকোতে মুখোমুখি হবে রিয়াল-বার্সা। সেই ম্যাচে কি কোপার হারের শোধ নিতে পারবে রিয়াল? নাকি আবার রিয়ালের মাঠ থেকে জয় নিয়ে ফিরবেন মেসিরা?

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন