• চ্যাম্পিয়নস লিগ
  • " />

     

    'চ্যাম্পিয়নস লিগ না জিতলেও নিজেকে মেরে ফেলবো না'

    ম্যানচেস্টার সিটির দায়িত্ব নেওয়ার তিন বছর পেরিয়ে গেছে পেপ গার্দিওলার। রেকর্ড গড়ে দুইবার সিটিজেনদের লিগ শিরোপা জিতিয়েছেন তিনি। তবে চ্যাম্পিয়নস লিগে সাফল্য আসেনি, ওঠা হয়নি ফাইনালেও। নতুন মৌসুমের শুরুটা জয় দিয়েই করেছিল সিটি। গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ডায়নামো জাগরেবের মুখোমুখি হবে সিটি। ম্যাচের আগে গার্দিওলা বলছেন, চ্যাম্পিয়নস লিগ না জিতলেও তার জীবন একইরকমই থাকবে, এই ‘শোকে’ নিজেকে মেরে ফেলবেন না তিনি। 

    শেষবার গার্দিওলা চ্যাম্পিয়নস লিগ শিরোপা ছুঁয়ে দেখেছিলেন বার্সেলোনার কোচ থাকা অবস্থায়। ২০১১ সালের পর আর ইউরোপসেরার টুর্নামেন্টে সাফল্য আসেনি তার। সিটির কোচ হওয়ার পর তিন মৌসুমেই দলকে সেমিতে ওঠাতে ব্যর্থ হয়েছেন গার্দিওলা। 

    গার্দিওলার এই হাসিটা মৌসুম শেষে থাকবে তো? 

     

    এবারও চ্যাম্পিয়নস লিগ না জিতলে কি মুষড়ে পড়বেন গার্দিওলা? জাগরেবের ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে সিটি কোচ অবশ্য জানালেন, চ্যাম্পিয়নস লিগ না জিতলেও খুব একটা আহামরি পরিবর্তন আসবে না তার জীবনে, ‘আমি এটা জিততে চাই। কিন্তু এবারও যদি চ্যাম্পিয়নস লিগ না জিততে পারে সিটি, তাহলে আমার জীবনের কিছুই বদলাবে না। আমি নিজেকে মেরেও ফেলব না! আমার প্রথম সংবাদ সম্মেলনেও একই প্রশ্ন শুনতে হয়েছিল। আমাকে বলা হয়েছিল আমি এখানে চ্যাম্পিয়নস লিগই জিততে এসেছি। কিন্তু দলের মালিকদের পক্ষ থেকে তেমন কিছুই জানানো হয়নি।’ 

    চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার ব্যাপারে ‘অধৈর্য’ হওয়া যাবে না, মানছেন গার্দিওলা, ‘অনেক সময় এটা জিততে অনেক বছর লাগে, অনেক সময় এক বছরেই হয়ে যায়। বার্সেলোনা আমার হৃদয়ের ক্লাব। তাদের জন্ম অনেক আগে হলেও ১৯৯২ সালেই প্রথমবার তারা এই শিরোপা জিতেছে। আমি আগামী ১০ মাস এটা ভেবে কাটাতে চাই না যে, চ্যাম্পিয়নস লিগ না জিতলে আমার সবকিছু শেষ হয়ে যাবে। আমার জীবনটা ভালোই কাটছে।’ 

    এক জরিপে সিটি সমর্থকরা জানিয়েছেন, চ্যাম্পিয়নস লিগে চেয়ে গার্দিওলার অধীনে এবার তৃতীয় লিগ শিরোপা দেখতেই বেশি পছন্দ করবেন তারা। সমর্থকদের উদ্দেশ্যে গার্দিওলা বলছেন, সব টুর্নামেন্টেই তাদের পাশে থাকতে হবে দলের, ‘আমি জানি সমর্থকদের কাছে প্রিমিয়ার লিগটাই বেশি আগ্রহের। সব জরিপেই চ্যাম্পিয়নস লিগের চেয়ে লিগ এগিয়ে আছে। প্রিমিয়ার লিগ বিশেষ কিছু হলেও চ্যাম্পিয়নস লিগও দারুণ একটা টুর্নামেন্ট। তবে ক্লাবের বাস্তবতায় সমর্থকদের এমন ভোট মেনে নিতে হবে। আমাদের খেলা দিয়েই তাদের চ্যাম্পিয়নস লিগের গুরুত্বটা বুঝাতে হবে। আমরা চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতার খুব কাছেই এসে গিয়েছি। কিন্তু এই টুর্নামেন্টের মান অনেক ওপরে। তাই সবাইকে বলতে চাই, স্টেডিয়ামে এসে আমদের সমর্থন জানান।’