• স্প্যানিশ সুপার কাপ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    শিশুতোষ ভুলের জন্য হারতে হয়েছে আমাদের: মেসি

    অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে ৮০ মিনিট পর্যন্ত এগিয়ে থেকেও স্প্যানিশ সুপারকাপের ফাইনালে খেলা হয়নি বার্সেলোনার। শেষ ১০ মিনিটে আলভারো মোরাতা এবং আনহেল কোরেয়ার গোলে ৩-২ ব্যবধানে হেরে সুপারকাপের চার দলের প্রথম আসরের সেমিফাইনাল থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে এর্নেস্তো ভালভার্দের দলের। দুর্দান্ত খেললেও শেষ পর্যন্ত আবারও এক টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে হতাশ হতে হয়েছে বার্সেলোনা অধিনায়ক লিওনেল মেসিকে। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মনে করেন, নিজেদের শিশুতোষ ভুলেই হারতে হয়েছে তাদের।

    ডিয়েগো সিমিওনের দলের বিপক্ষে প্রথমার্ধে দুর্দান্ত খেলেছিল বার্সা। গোলের সুযোগ তৈরি, পজেশন ধরে রাখা- সবদিক দিয়েই এগিয়ে ছিল তারাই। কোকের গোলে পিছিয়ে পড়লেও মেসি এবং গ্রিযমানে এগিয়ে গিয়েছিল তারা। কিন্তু শেষদিকে সব হিসেবনিকাশ পাল্টে যায় কাতালানদের। ম্যাচ শেষে হারের জন্য নিজেদেরই দায়ী করছেন মেসি, '৮০ মিনিট পর্যন্ত ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ আমাদের হাতেই ছিল। আক্রমণে এগিয়ে ছিলাম, গোলের অনেক সুযোগও তৈরি করেছিলাম। কিন্তু শেষ ১০ মিনিটে সব এলোমেলো হয়ে গেল। এরকম শিশুতোষ ভুল আর করা যাবে না। শেষদিকে মনযোগ হারিয়েই ম্যাচটি হারলাম আমরা।'

     

     

    সমালোচনা করলেও দলের পারফরম্যান্সে নিয়ে আশা দেখছেন মেসি, 'হারটা আমাদের প্রাপ্য নয়। আক্রমণে আমরা দারুণ খেলেছি। এই ম্যাচ থেকে আমাদের শেখার অনেক কিছু আছে। জিততে হলে পুরো ৯০ মিনিটই পূর্ণ মনযোগ দিয়ে খেলতে হবে আমাদের। ভাল খেলে হেরে যাওয়া সবসময়ই হতাশাজনক, বিশেষ করে যখন সেটা শিরোপার জন্য হয়।'

    মেসির সাথে একমত গ্রিযমানও, 'আমরা এমন কিছু ভুল করেছি যেগুলোর জন্য আমরা চ্যাম্পিয়নস লিগ বা লা লিগার শিরোপাও হারাতে পারি। শেষ ১০ মিনিটে আমরা দুটি ভুল করেছি, তারা (অ্যাটলেটিকো) সুযোগগুলো কাজে লাগিয়েছে। এরকম ছোট ছোট ভুলই ব্যবধান গড়ে দিতে পারে।'

    দ্বিতীয়ার্ধে মেসি এবং গ্রিযমানের দুটি গোল বাতিল করেছিল 'ভিএআর'। কিন্তু ভিডিও রেফারিকে দোষারপ করেননি গ্রিযমান, 'ভিএআর ফুটবলের ভালোর জন্যই কাজ করছে। আমরা হেরেছি নিজেদের ভুলেই, এখানে বিতর্ক বা ভিডিও রেফারির কোনো হাত নেই।'

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন