• ইংল্যান্ডের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর
  • " />

     

    এড শিরানের সঙ্গে তুলনার পর অভব্য আচরণ করে ক্ষমা চাইলেন স্টোকস

    নিজের দিনে বেন স্টোকস কী করতে পারেন, সবাই জানে এখন। তিনিই তখন খবরের শিরোনাম। তবে নিজের দিন না হলেও স্টোকস শিরোনাম হয়েছেন আগে, এবারও হলেন খেলার বাইরের কারণে। জোহানেসবার্গ টেস্টে এক দর্শককে গালি দেওয়ার সময় স্টোকসের ভিডিও ধরা পড়েছে টিভি সম্প্রচারে, পরে টুইট করে নিজের ওই মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন। তবে আইসিসির কাঠগড়ায় বেঁচে না-ও যেতে পারেন স্টোকস।

    ঘটনাটা ঘটেছিল ওয়ান্ডারার্স টেস্টে কাল দ্বিতীয় দিনে। ২ রান করেই আউট হয়ে গিয়েছিলেন স্টোকস, হতাশ হয়ে ফিরছিলেন ড্রেসিংরুমে। গ্যালারি থেকে এ সময় ভেসে আসছিল কটুক্তি। একজন দর্শক বার বার খুঁচিয়ে যাচ্ছিলেন স্টোকসকে, গায়ক এড শিরানের সাথে তুলনা করে কটুক্তি করছিলেন। একটা সময় মেজাজ হারিয়ে বসেন স্টোকস, গালি দেন সেই ভক্তকে। অভব্য সেই আচরন সরাসরি না দেখালেও পরে ব্রকাস্টে দেখানো হয়েছে। সেখান থেকে সেটি ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

    ম্যাচ শেষে নিজের এই আচরণের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন স্টোকস, ‘আমার কোনো অবস্থাতেই ওই কাজ করা উচিত হয়নি। একজন দর্শক ক্রমাগত আমাকে কটুক্তি করে যাচ্ছিল। তবে আমিঅপেশাদার আচরণ করেছি, আমার ওই কথার জন্য আমি ক্ষমা চাইছি। বিশেষ করে কিশোর ও তরুণদের কাছে, যারা টিভি সেটের সামনে বসে আমার খেলা দেখেছে।’ স্টোকস বলেছেন, এই সিরিজে দুই দলের সমর্থকদের আচরণ ছিল প্রশংসনীয়। একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা তাই দুই দলের সমর্থকদের মধ্যে কোনো বিভেদ তৈরি করবে না বলেই তার বিশ্বাস।

    কিন্তু ক্ষমা চাইলেও স্টোকস পার নাও পেতে পারেন। এই কাজের জন্য সর্বনিম্ন শাস্তি একটি ডিমেরিট পয়েন্ট, সেক্ষেত্রে নিষিদ্ধ হওয়া থেকে বেঁচে যেতে পারেন। কিন্তু আইসিসি এটা লেভেল ফোর ধরনের অপরাধ মনে করলে পাঁচ থেকে ছয় ডিমেরিট পয়েন্ট পেতে পারেন। সেক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা পেতে হতে পারে তাকে।