• পাকিস্তানের ইংল্যান্ড সফর ২০২০
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    বৃষ্টিশেষে অনিবার্য ড্র, এর আগে ক্রলির ফিফটি

    ২য় টেস্ট, সাউদাম্পটন 
    পাকিস্তান ১ম ইনিংসে ২৩৬ (রিজওয়ান ৭২, আবিদ ৬০, ব্রড ৪/৫৬, অ্যান্ডারসন ৩/৬৯)
    ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস ১১০/৪ ডিক্লে. (ক্রলি ৫৩, সিবলি ৩২, আব্বাস ২/২৮, আফ্রিদি ১/২৫)
    ম্যাচ ড্র, ইংল্যান্ড সিরিজে ১-০তে এগিয়ে


    সাউদাম্পটনে আর কিছু বাকি ছিল না। নেহায়েত খেলতে হয় বলেই খেলা, তবে সেসবও তো কারও জন্য সুযোগ আনে। জ্যাক ক্রলির জন্য, মোহাম্মদ আব্বাসের জন্য, অথবা যারা দেখছেন তাদের জন্য। ৫ম দিনেরও বেশিরভাগ সময় হারিয়ে যাওয়ার পর এ টেস্টের ভাগ্যে ড্র ছাড়া আর কিছু ছিলও না। যেটুকু খেলা হলো, তাতে দারুণ এক ফিফটি করলেন ক্রলি, আর আব্বাস আফসোসটা বাড়িয়ে দিলেন। তার বোলিং রোমাঞ্চকর এক লড়াইয়ের আভাস দিচ্ছিল জো রুটদের সঙ্গে। 

    ৫ দিন মিলিয়ে মোটে ১৩৪.৩ ওভার খেলা হয়েছে। এদিনও শুরুতে হতে হতে বাজলো প্রায় ৩.৩০। শুরুতে ডম সিবলি ও ক্রলির জুটি ভাঙতে বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হলো পাকিস্তানকে। দুজন মিলে এদিন খেললেন ২৬ ওভার। ক্রলি খেললেন দারুণ কিছু শট। ৩৭ রানে একবার জীবন পেলেন মোহাম্মদ রিজওয়ান
    স্টাম্পিংয়ের সুযোগ মিস করায়। 

    তবে ফিফটি পেলেন ঠিকই তিনি। ইয়াসিরের লং-হপে চার মেরে তৃতীইয় ফিফটি হলো তার। এ গ্রীষ্মে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ৭৬ করেছিলেন, এ টেস্টে খেলছেন বেন স্টোকসের জায়গায়। তৃতীয় টেস্টে নিজের জায়গার দাবিটা জোরালো করেই গেলেন তিনি। 

    অবশ্য ফিফটির পরপরই ফিরতে হয়েছে তাকে। নতুন স্পেলে ফিরেই আঘাত করেছেন আব্বাস, মিডল থেকে সিমে পড়ে ভেতরের দিকে ঢোকা বলে ক্রলি এলবিডব্লিউ হয়েছেন শেষ পর্যন্ত রিভিউয়ের উইকেটে আম্পায়ারস কলে। পরের ওভারে আরেক সেট ব্যাটসম্যান সিবলিকেও ফিরিয়েছেন আব্বাস। ডাউন দ্য লেগে ব্যাট চালিয়ে উইকেটের পেছনে ধরা পড়েছেন সিবলি। 

    ওলি পোপ বেশিক্ষণ টেকেননি, ইয়াসিরের বলে প্লাম হয়েছেন, রিভিউ নিয়েও কিছু হয়নি তার। ইংল্যান্ড অধিনায়কের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন জস বাটলার, এরপর আর সেই অর্থে অ্যাকশন হয়নি। ‘ড্র’ মেনে নেওয়ার সময় এগিয়ে নিতে ইনিংস ঘোষণা করে দিয়েছে ইংল্যান্ড, সে ওভারের ওই এক বল করেছেন আজহার আলি। এমনিতে লেগস্পিন করলেও সে বলটা করলেন মিডিয়াম পেস, যদিও অ্যাকশন থাকলো কিছুটা লেগস্পিনারের মতোই। বলটা তীক্ষ্ণ একটা টার্নও নিল। 

    আজহার সেটি নিয়েই আফসোস করছিলেন হাসতে হাসতে। হাসছিলেন সবাই। ৫ দিন ধরে যে হতাশা ছিল প্রায় সবারই। এ মাঠেই শুক্রবার সিরিজের শেষ টেস্ট, যেটিতে ইংল্যান্ড নামবে ১-০তে এগিয়ে থেকেই। 

    প্রথম ইনিংসে দারুণ ফিফটির জন্য ম্যাচসেরা হয়েছেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। 


     

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন