• পাকিস্তানের ইংল্যান্ড সফর ২০২০
  • " />

     

    ইতিহাসগড়া ৬০০ উইকেটের ক্লাবে জেমস অ্যান্ডারসন

    ইতিহাসগড়া ৬০০ উইকেটের ক্লাবে জেমস অ্যান্ডারসন    

    শেন ওয়ার্ন, মুত্তিয়া মুরালিধরন ও অনীল কুম্বলের পর ইতিহাসে চতুর্থ বোলার হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে ৬০০ উইকেট পেলেন জেমস অ্যান্ডারসন। সাউদাম্পটনে পাকিস্তানের বিপক্ষে তৃতীয় টেস্টের শেষদিনের শেষ সেশনে আজহার আলির উইকেট দিয়ে এ মাইলফলক হলো এই পেসারের। তার আগে আর কোনও পেসারের এই কীর্তি নেই।

    এই টেস্টে বেশ কয়েক সেশন ধরে অপেক্ষা ছিল এই একটা উইকেট নিয়েই। শেষদিন খেলা শুরু হলো চা-বিরতির পর, অ্যান্ডারসন নিজের ১৪তম ডেলিভারিতে পেলেন সেই উইকেটটা। লেংথ থেকে লাফিয়ে ওঠা বলটা শেষমুহুর্তে এজড হলেন আজহার, বল গেল একমাত্র স্লিপে ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুটের হাতে।

    প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেটের পর অ্যান্ডারসন দ্বিতীয় ইনিংসে নিয়েছিলেন এর আগে আর একটি উইকেট, দাঁড়িয়ে ছিলেন ৫৯৯ উইকেটে। অবশ্য মাইলফলকে তিনি যেতে পারতেন আরও আগেই, তার বলে সহজ ৪টি ক্যাচ ফেলেছিলেন এর আগে ইংল্যান্ড ফিল্ডাররা।

    এই গ্রীষ্মে ইংল্যান্ডের এটিই শেষ সিরিজ, কোভিড-১৯ মহামারিতে পরের সিরিজ বা টেস্ট কবে, নিশ্চিত নয় সেটিও। তবে সে অনিশ্চয়তার লিম্বোতে যেতে হলো না ‘জিমি’কে। সাউদাম্পটনেই তিনি গড়লেন ইতিহাস।

    ২০০৩ সালে লর্ডসে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেক করেছিলেন অ্যান্ডারসন, খেলছেন ১৭ বছরের বেশি সময় ধরে। সাউদাম্পটন ছিল তার ১৫৬তম টেস্ট, আর কোনও স্পেশালিস্ট পেসার এতো টেস্ট খেলেননি। 

    অবশ্য বয়স ৩৮ পেরিয়ে গেলেও শীঘ্রই অবসরের ইচ্ছা নেই তার, অ্যান্ডারসন সেটি জানিয়েছেন আগেই। ২০২১ সালের অ্যাশেজ পর্যন্ত খেলার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন তিনি। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন