• ক্রিকেটে ফেরা
  • " />

     

    আবারও কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়ে 'বিরক্ত' ও 'হতাশ' সাইফ, তবে 'হাল' ছাড়ছেন না

    দ্বিতীয়দফা পরীক্ষাতেও কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছেন জাতীয় দলের ওপেনার সাইফ হাসান। মঙ্গলবার ও বুধবার নিজের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজেই এ খবর দিয়েছেন তিনি। 

    ৮ সেপ্টেম্বর বিসিবি বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছিল, কোভিড-১৯ এর প্রথমদফা জাতীয় দলের যে কজন ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফের টেস্ট করানো হয়েছে, তাদের মাঝে পজিটিভ এসেছে সাইফের, সঙ্গে কন্ডিশনিং কোচ নিক লির। ১১ সেপ্টেম্বর আরেকটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছিল, লিসহ ৪ জন কোচিং স্টাফ এবং একজন ক্রিকেটারের কোভিড-১৯ টেস্ট করানো হয়েছে, যাদের সবারই নেগেটিভ এসেছে। তবে সেই ক্রিকেটারটি সাইফ কিনা, তা জানানো হয়নি। 

    প্রথমদফা কোভিড-১৯ নেগেটিভ আসা ক্রিকেটারদের নিয়ে আবারও শুরু হয়েছে অনুশীলন, যেটিতে যোগ দেননি সাইফ। মাঝে কয়েকদিন বিরতি ছিল এই অনুশীলনে। শুরুতে ব্যক্তিগত অনুশীলন হলেও এখন গ্রুপ করে অনুশীলন হচ্ছে, এসেছেন হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো, বোলিং কোচ ওটিস গিবসনরা। 

    বুধবার সাইফের অফিশিয়াল ফেসবুক পেইজ থেকে তার পুনরায় পজিটিভ আসার খবরটি দেওয়া হয়েছে। এর আগে নিজের আন-অফিশিয়াল ইনস্টাগ্রাম আইডিতে সাইফ তার এই পজিটিভ আসার খবরটি দিয়েছিলেন, “আসসালামু আলাইকুম। আশা করি সবাই নিরাপদ ও ভাল আছেন। অনেকেই এরই মাঝে জেনে থাকবেন যে, আমি গত সপ্তাহে কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছিলাম। আজ (মঙ্গলবার) আমি দ্বিতীয়বার টেস্ট করিয়েছিলাম, তবে দূর্ভাগ্যজনকভাবে টেস্ট আবারও পজিটিভ এসেছে। 
     


    এই ভাইরাসের ওপর যে তিনি ‘বিরক্ত’, সেটি লুকোননি, “গত সপ্তাহে আমি যা করেছি, নিজেকে বলেছি যে আমি ঠিক আছি, যদিও খুব ভাল করেই জানতাম আমি না নেই। আইসোলেশনের তিন দিনের মাথায় আমি স্বাদ ও গন্ধ হারিয়ে ফেলেছিলাম, এখনও সেরে উঠছি। বন্ধুরা, এক কথায় বলতে গেলে আমি বিরক্ত। আমি হতাশ এই কোভিড-১৯ কতোকিছু আমাদের থেকে কেড়ে নিল, সেটা নিয়ে।”

    অবশ্য সবকিছু স্বাভাবিক হবে, সেটি নিয়েও আশাবাদি তিনি, “তবে আমরা হাল ছাড়বো না। আমরা নিজেরাই তো নিজেদের জন্য। পরিস্থিতি যতোই কঠিন হোক না কেন, আমরা এগিয়ে যাব। ইনশাআল্লাহ সময়ের সঙ্গে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটবে, পৃথিবী আরও ভাল হয়ে উঠবে। আসছে দিনগুলিতে আমি সবাই যাতে সুস্থ থাকে, সেই দোয়া করি। দয়া করে আমার ও আমার পরিবারের জন্য দোয়া করবেন।”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন