• ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    তামিমের ঝড়ে আরেকটু কাছে আবাহনী

    এই ম্যাচটা জিতলেই শিরোপা একরকম নিশ্চিত হয়ে যাবে আবাহনীর। শুরু থেকেই ব্যাপারটা সম্ভবত মাথায় রেখেছিলেন তামিম ইকবাল। বিকেএসপিতে ব্যাট করতে নেমে আজ শুরু থেকেই রূদ্রমূর্তিতে আবাহনী ওপেনার। শেষ পর্যন্ত ১৩২ বলে ১৪২ রান করে আউট হয়েছেন,  আবাহনীকে নিয়ে গেছেন ৩১৬ রানের চূড়ায়।

     

    কয়েক দিন আগেই আবাহনী প্রিমিয়ার লিগে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ৩৭১ রানের রেকর্ড গড়েছিল। ওই ম্যাচে ১৩৯ রান করেছিলেন লিটন দাশ, আজকের ম্যাচের আগ পর্যন্ত প্রিমিয়ার লিগে ওটাই ছিল সবচেয়ে বড় ব্যক্তিগত রানের ইনিংস। আজ তামিম ছাড়িয়ে গেলেন তাঁকে, একই সঙ্গে আবদুল মজিদকে টপকে এবারের লিগের সবচেয়ে বেশি রানও এখন তাঁর। তামিমের রান এখন ৭১৪, মজিদের রান তাঁর চেয়ে ৮ কম।

     

    অথচ রুবেল হোসেনের প্রথম ওভারেই একটা ধাক্কা খেয়েছিল আবাহনী, কোনো রান না করেই ফিরে গিয়েছিলেন লিটন দাশ। নাজমুল হোসেন শান্তকে নিয়ে তামিম শুরুতে একটু খোলসের মধ্যেই ছিলেন। ৫০ পূর্ণ করতে খেলেছেন ৭১ বল। আবাহনী ২৫ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে তখন করেছে মাত্র ১১১।

    কিন্তু মোসাদ্দেক হোসেন নামার পড়েই বদলে যায় পরিস্থিতি। দুজনেই হাত খুলে খেলতে শুরু করেন। তামিম পরে সেঞ্চুরি পূরণ করেছেন ১১৪ বলে, পরের ৫০ করার জন্য খেলেছেন মাত্র ৪৩ বল। এর পর ছিলেন আরও বেশি আগ্রাসী, শেষ পর্যন্ত উন্মুক্ত চাঁদের বলে আউট হয়েছেন ১৪২ রান করে। চারটি ছয় মেরেছেন, চার ছিল ১১টি।

    এবারের লিগে দারুণ ধারাব্বিক মোসাদ্দেক আজও ছিলেন উজ্জ্বল, ৭৪ বলে করেছেন ৭৮। তবে আবাহনীর রান ৩০০ পেরিয়ে যাওয়ার বড় অবদান আবুল হাসানের। শেষ দিকে দুই চার ও দুই ছয়ে ১০ বলে করেছেন ২৬ রান।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন