• ইংল্যান্ড-পাকিস্তান
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    'নো' বল ডাকবেন টিভি আম্পায়ার?

    ক্রিকেটে ক্রমবর্ধমান প্রযুক্তি ব্যবহারের ধারাবাহিকতায় আসতে যাচ্ছে নতুন সংযোজন। বোলারদের পায়ের ‘নো’ বল ডাকার কাজটি এতোদিন মাঠের আম্পায়াররাই করে আসলেও নতুন করে এ দায়িত্ব বর্তাতে পারে টিভি আম্পায়ারের উপর। পরীক্ষামূলকভাবে টিভি আম্পায়াররা এ দায়িত্ব পালনও করতে যাচ্ছেন আসন্ন ইংল্যান্ড-পাকিস্তান ওয়ানডে সিরিজে।

     

     

    এই কাজে টিভি আম্পায়ারকে পূর্ণ সহযোগিতা দিতে ব্যবহার করা হবে ‘রান আউট’ সনাক্ত করার কাজে ব্যবহৃত মাঠের চার কোণের চারটি ক্যামেরা। টিভি আম্পায়ারের সামনের পর্দায় এই চারটি ক্যামেরার চলমান রেকর্ড একসাথে দেখা যাবে। আনুষঙ্গিক প্রযুক্তির ব্যবহারে এসব ক্যামেরার ফুটেজ থেকে বোলারদের ‘ফ্রন্ট ফুট নো’ বল সনাক্ত করবেন টিভি আম্পায়ার। এরপর এই বার্তা মাঠের আম্পায়ারদের কাছে পৌঁছবে তাঁদের হাতে বাঁধা বিশেষ এক বার্তা প্রাপক যন্ত্রের মাধ্যমে। ‘নো’ বলের সংকেতে ওই যন্ত্রে কম্পন অনুভূত হবে। কোনো কারণে যান্ত্রিক গোলযোগ হলে সংকেতটি মৌখিকভাবেই মাঠের আম্পায়ারদের কাছে পাঠানো হবে। তবে কোনো ভেন্যুতে উল্লেখিত ক্যামেরাগুলো না থাকলে মাঠের আম্পায়ারই ‘নো’ বলের সংকেত দেয়ার দায়িত্ব পালন করবেন।

     

    পরীক্ষামূলক প্রয়োগে এর কার্যকারিতা, টিভি আম্পায়ারের উপর চাপ এবং খেলার গতিপ্রকৃতির উপর এর প্রভাব পর্যবেক্ষণ করা হবে বলে জানাচ্ছেন আইসিসির একজন কর্মকর্তা। সিরিজ শুরুর আগে আম্পায়ারদের এ ব্যাপারে প্রশিক্ষণও দেয়ার কথা রয়েছে।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন