• শ্রীলঙ্কা-অস্ট্রেলিয়া
  • " />

     

    দিলশানকে বিদায়ী উপহার দেয়া হলো না শ্রীলঙ্কার

    শ্রীলঙ্কা ২২৬ অলআউট(৪৯.২ ওভার)

    অস্ট্রেলিয়া ২২৭/৮ (৪৬ ওভার)

    ফলঃ অস্ট্রেলিয়া দুই উইকেটে জয়ী

     

    দিলরুয়ান ডি সিলভা ধরতে পারলেন না ক্যাচটা। ম্যাচের শেষ ওখানেই। টিভিস্ক্রিনে এরপর যে মুখটা ভেসে উঠলো, সেই তিলকারত্নে দিলশানেরও শেষ ম্যাচ! তবে দিলশানের বিদায়ী ম্যাচে তাঁকে জয়টা উপহার দেয়া হলো না শ্রীলঙ্কার। ক্ষণে ক্ষণে রঙ বদলানো ম্যাচটা হারতে হলো দুই উইকেটে!

     

    ডাম্বুলায় শ্রীলঙ্কা ও অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচটা ছিল দুমুখী। কখনও শ্রীলঙ্কা, কখনও অস্ট্রেলিয়া, পালা করে চাপে পড়েছে দুদলই। টসে জিতে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কা ২৩ রানেই হারিয়ে ফেলেছিল দুই উইকেট। দিলশান-চান্ডিমালের জুটি সে যাত্রায় রক্ষা করেছে শ্রীলঙ্কাকে, এরপর আবার পড়েছে চাপে। ৮২ রানেই হারিয়ে ফেলেছে ছয় উইকেট, সেখান থেকে দলের স্কোরটা ২২৬ এ নিয়ে যাওয়ার মূল কৃতিত্ব দীনেশ চান্ডিমালের। অসাধারণ এক সেঞ্চুরি করা চান্ডিমালই ১০২ রানে আউট হয়েছেন শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে।

     

    ব্যাটিংয়ে অস্ট্রেলিয়াও চাপে পড়েছে এরপর। ৪৪ রান করতেই প্রথম তিন উইকেট নেই, যাঁর শুরুটা হয়েছিল ‘বিদায়ী’ দিলশান যখন ম্যাথিউসের বলে ওয়ার্নারের অসাধারণ এক ক্যাচ নিয়েছিলেন পয়েন্টে। অস্ট্রেলিয়াকে সেখান থেকে টেনে তুলেছেন জর্জ বেইলি। হেড আর ওয়েডের সঙ্গে ৬২ ও ৮১ রানের জুটি গড়ে দলকে যখন জয় দেখাচ্ছেন, আউট হয়েছেন তখনোই। ১৯ রানে তিন উইকেট হারিয়ে আবার চাপে পড়েছিল অস্ট্রেলিয়া।

     

    মিচেল স্টার্ক ৮ বলে ১২ রান করে সে চাপ সামাল দিয়েছেন, ছয় মারতে গিয়ে আউট হয়ে আবার ফেলেছেন চাপে! তখন আর রান-বলের হিসাব নয়, ম্যাচের মূল হিসাব দাঁড়িয়েছে রান ও উইকেটে। চার মেরে অস্ট্রেলিয়াকে নিরাপদে নিয়ে গেছেন জ্যাম্পা। এরপরই দিলরুয়ানের ওই ক্যাচ মিস, আর অস্ট্রেলিয়ার জয়।

     

    দিলশান শেষ ম্যাচে পেলেন উত্তেজনার রোমাঞ্চ, পেলেন না শুধু জয়ের স্বাদ!

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন