• শ্রীলঙ্কা-অস্ট্রেলিয়া
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    শেষটা রাঙাতে পারলেন না দিলশান

    সংক্ষিপ্ত স্কোর 
    শ্রীলঙ্কাঃ ২০ ওভারে ১২৮/৯ (ডি সিলভা ৬২, কুশল সিলভা ২২; জাম্পা ১৬/ ৩, ফকনার ১৯/৩ 
    অস্ট্রেলিয়াঃ  ১৭.৫ ওভারে ১৩০/৬ (ম্যাক্সওয়েল ৬৬, ওয়ার্নার ২৫; দিলশান ২/৮)


    শেষ হয়ে গেল দিলশান যুগের। শ্রীলঙ্কার জার্সি গায়ে নিজের শেষ ম্যাচটা অবশ্য রাঙাতে পারলেন না তিলকরত্নে দিলশান, সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও স্বাগতিকেরা অস্ট্রেলিয়ার কছে হেরে গেছে ৪ উইকেটে।
     

    স্কোরকার্ডটা একটু অদ্ভুতই দেখাবে। পুরো ম্যাচে দুই দলের হয়ে ব্যাট করেছেন ১৯ জন, এর মধ্যে দুই অঙ্ক ছুঁতে পেরেছেন মাত্র পাঁচজন। শ্রীলঙ্কার হয়ে শুরুতে একমাত্র প্রতিরোধ গড়তে পেরেছেন ধনঞ্জয় ডি সিলভা, তিনে নেমে ৫০ বলে করেছেন ৬২ রান। দিলশান শুরুতেই ১ রানে ফিরে যাওয়ার পর কুশল পেরেরাই যা একটু সঙ্গ দিয়েছেন ডি সিলভাকে। এরপর বাকিরা ছিলেন আসা যাওয়ার মিছিলে, আর কেউই দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে ডি সিলভা যখন শেষ ওভারে গিয়ে আউট হয়েছেন, শ্রীলঙ্কার রান তখন ১২৫। শেষ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কার স্কোর ১২৮ রানের বেশি হয়নি। 

    সেই স্কোরটা অস্ট্রেলিয়ার দুই ওপেনার আরও মামুলি বানিয়ে ফেলবেন বলেই মনে হয়েছিল। আগের ম্যাচ যেখানে শেষ করেছিলেন, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল শুরু করেছিলেন সেখান থেকেই। ডেভিড ওয়ার্নারকে নিয়ে ৮ ওভার ৩ বলেই তুলে ফেলেছিলেন ৯৩ রান, ম্যাচের ভাগ্যও তখনই ঠিক হয়ে গেছে। এর পর হঠাৎ করেই বিপর্যয়, ৬ রানের মধ্যে অস্ট্রেলিয়া হারিয়ে ফেলে ৪ উইকেট। ২৯ বলে ৬৬ রান করে আউট হয়ে গেছেন ম্যাক্সওয়েল। শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া হোঁচট খেলেও লক্ষ্যে ঠিকই পৌঁছে গেছে। ওয়ানডের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজও শেষ করেছে জয় দিয়ে। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন