• পাকিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজ
  • " />

     

    দিবারাত্রির টেস্টে আজহারের ৩০০

    জার্মেইন ব্ল্যাকউডের বলটা ছিল স্টাম্পের একটু বাইরে। কভারে ড্রাইভ করে ফেটে পড়লেন উল্লাসে। চার মেরেই হয়ে গেল কীর্তিটা, পাকিস্তানের ইতিহাসে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে ট্রিপল সেঞ্চুরি হয়ে গেল আজহার আলীর। হানিফ মোহাম্মদ, ইনজামাম উল হক ও ইউনিস খানদের মতো পূর্বসূরিদের সঙ্গে একসঙ্গে নিতে হবে এখন আজহারের নামও। 


    এক দিক দিয়ে আজহারের কীর্তিটা অনন্য। এশিয়ায় প্রথম দিবারাত্রির টেস্ট, তাতে প্রথম সেঞ্চুরিই এই ব্যাটসম্যানের। সেই সেঞ্চুরিকে ডাবলের পর এবার ট্রিপলেও নিয়ে গেলেন। নিজের ৫০তম টেস্ট এর চেয়ে ভালোভাবে আর উদযাপন করতে পারতেন না। টেস্ট ইতিহাসে এটি ২৯তম ট্রিপল সেঞ্চুরি। পাকিস্তানের হয়ে চতুর্থ আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তৃতীয়। সংযুক্ত আরব আমিরাতে অবশ্য এটাই প্রথম। পাকিস্তানের প্রথম ট্রিপল সেঞ্চুরি যেটি, হানিফ মোহাম্মদের সেই ৩৩৭ রানও এসেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। 


    সেঞ্চুরি পেয়ে গিয়েছিলেন আগের দিনই। আজ চা বিরতির ঠিক পর পেয়ে গেছেন ডাবল সেঞ্চুরিও, শ্যানন গ্যাব্রিয়েলের বলে চার মেরে। কী অদ্ভুত, সেঞ্চুরিটাও এসেছিল চার মেরেই। তিন বারই বাউন্ডারি দিয়েই ছুঁলেন মাইলফলক। প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান ৩ উইকেটে ৫৭৯ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করেছে। আজহার ছাড়া কেউ অবশ্য তিন অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। সামি আসলাম করেছেন ৯০, আসাদ শফিক করেছেন ৬৭, বাবর আলী করেছেন ৬৯। 

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন