• অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান
  • " />

     

    এখনই পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নয়?

    ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কার সেই বিভীষিকার সফরের পর কেটে গেছে আট বছর। পাকিস্তানে এর পর অনেকদিনই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ ছিল,দেড় বছর আগে জিম্বাবুয়ের ছোট্ট একটা সফর দিয়ে আবার ফিরেছিল সেটি। কিন্তু তারপরও পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের পুরোপুরি ফেরা নিয়ে এখনো সংশয় কাটেনি। এবার আইসিসির পাকিস্তান টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান জাইলস ক্লার্কও বলছেন, পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ফেরা নিয়ে কোনো তাড়াহুড়ো করবেন না। সরাসরি না বললেও জানিয়ে দিলেন, খুব শিগগিরই পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট হচ্ছে না।

    অনেক দিন ধরেই পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটাররা দেশটিতে আবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরিয়ে আনার জন্য সোচ্চার। পাকিস্তান সরকারও চেষ্টা করছে বেশ কিছু দিন ধরে। সেজন্যই ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি জাইলস ক্লার্ককে প্রধান বানিয়ে একটা টাস্কফোর্স গঠন করেছে আইসিসি। ওই টাস্কফোর্সের প্রধান হিসেবেই পাকিস্তানে এসেছেন ক্লার্ক। লাহোরে প্রথম সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, নিরাপত্তার ব্যাপারে পাকিস্তান সরকারের আন্তরিকতায় তারা সন্তুষ্ট। তবে দেশটিতে এখনই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর প্রক্রিয়াটা সময়সাপেক্ষ, সেটিও জানিয়ে দিয়েছেন।

    জাইলস বলছেন, পাকিস্তান সরকার ক্রিকেট ফেরানোর চেষ্টার জন্য যা করছে, সেটা প্রশংসা পাওয়ার মতো। তারপরও গত মার্চে লাহোরে হামলার কথা মনে করিয়ে দিয়েছেন, “আমরা চাই না, এখন আর কোনোভাবেই ভুল কিছু হোক। এখন কিছু একটা গড়বড় হলে পুরো প্রক্রিয়াটা অনির্দিষ্টকালের জন্য পিছিয়ে যেতে পারে। গত বছর লাহোরে যা হয়েছে, এরপর কোনো দলের এখানে আসাটা খুবই কঠিন। আমাদের নিশ্চিত করতে হবে, ভবিষ্যতে এরকম কিছু যাতে আর না ঘটে।”

    এর মধ্যেই পিসিবি জানিয়েছেন, পিএসএলের এবারের আসরের ফাইনাল লাহোরে হবে। সেটি নিয়েও বিদেশী খেলোয়াড়দের মধ্যে এখনো উৎকন্ঠা রয়েছে। জাইলস অবশ্য সিদ্ধান্তটা স্বাগতই জানাচ্ছেন।

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন