• ক্রিকেট

বাংলাদেশ-সমর্থকদের আশা দেখাচ্ছে আইসিসি

টিকিট চাই, টিকিট চাই! ইংল্যান্ডে তো বটেই, ফেসবুক-টুইটারে এখন কান পাতলেই শোনা যাবে ইংল্যান্ড-প্রবাসী অনেক বাংলাদেশ সমর্থকদের আকুতি। সেমিফাইনালে এজবাস্টনের টিকিট যে বাংলাদেশি সমর্থকদের কাছে সোনার হরিণ । আইসিসির ওয়েবসাইট বলছে, বিক্রি হয়ে গেছে সব টিকেটই।

 ওভালে ইংল্যান্ডের সঙ্গে প্রথম ম্যাচে গ্যালারি ছিল লাল-সবুজ। গড সেভ দ্য কুইনের চেয়ে আমার সোনার বাংলার কোরাসই হয়েছে বেশি। অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে পরের ম্যাচেও সেই ওভালেই হয়েছে, সেখানেও গ্যালারি হয়ে গিয়েছিল এক টুকরো বাংলাদেশ। আর কার্ডিফ তো বাংলাদেশের জন্য সব সময়ই পয়মন্ত। লন্ডনসহ আরও অনেক জায়গা থেকে ওয়েলসের রাজধানীতে ছুটে গেছেন বাংলাদেশীরা, অবিশ্বাস্য এক জয়ের পর মাশরাফিদের ল্যাপ অব অনারও পেয়েছেন তাঁরা।

কিন্তু বড় টুর্নামেন্টে প্রথমবার বাংলাদেশ যখন পা রেখেছে, গ্যালারিতে লাল সবুজ পতাকা কি উড়বে না? সেমিফাইনালে যাওয়ার আশা করেছেন খুব কমই, টিকিটও খুব বেশি কেউ কাটেননি। অন্য দলের সমর্থকেরাই তাই আগেভাগে সেগুলো কিনে রেখেছেন। কিন্তু এবার উল্টে গেছে দান, গত বারের বিশ্বকাপের দুই ফাইনালিস্ট অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড বিদায় নিয়েছে গ্রুপ পর্ব থেকেই। অন্য গ্রুপেও কোন দুইটি দল যাবে, এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বলা মুশকিল।

কাল ইএসপিএন ক্রিকইনফোর সাংবাদিক জর্জ ডোবেল অতি জরুরি বিষয়টা মনে করিয়ে দিয়েছেন আইসিসিকে, ‘আমার মনে হয় না খুব বেশি বাংলাদেশি সমর্থকের সেমিফাইনালের টিকিট আছে। সেরকম হলে ব্যাপারটা হবে খুবই দুর্ভাগ্যজনক। আইসিসির কি কিছু করার নেই?’ ডোবেলের টুইটের উত্তর দিয়েছে আইসিসি। সেখানে বাংলাদেশ সমর্থকদের জন্য আছে একটু আশার আলো, ‘আমরা দেখছি সেমিতে যেসব দর্শকেরা টিকিট কিনেছে তাদের দল সেমিতে যেতে পারছে কি না। সেরকম  হলে আমরা তাদের উৎসাহ দেব যেন তাদের টিকিটগুলো আইসিসির রি-সেইল ওয়েবসাইটে বিক্রির জন্য তুলে রাখে।’

আপাতত এটাই বাংলাদেশের সমর্থকদের যা একটু ভরসা!