• চ্যাম্পিয়নস ট্রফি
  • " />
    X
    GO11IPL2020

     

    ক্রীড়া মন্ত্রীকেই ধুয়ে দিলেন মালিঙ্গা

    হতাশা নিয়েই চ্যাম্পিয়নস ট্রফি থেকে ফিরতে হয়েছে। গ্রুপ পর্বের জীবন মরণ ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাজে ফিল্ডিংয়ের জন্য কম সমালোচনা শুনতে হয়নি ম্যাথুসের দলকে। এদিকে দেশটির ক্রীড়া মন্ত্রী দয়াসিরি জয়াসেকারা লংকান দলের ক্রিকেটারদের ফিটনেস নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। আর এতেই চটেছেন লাসিথ মালিঙ্গা, মন্ত্রীর মন্তব্যের কড়া সমালোচনাই করেছেন।

    মন্ত্রীর ওরকম মন্তব্য একেবারেই মেনে নিতে পারছেন না মালিঙ্গা, “আমি শুনেছি আমাদের ক্রীড়া মন্ত্রী বলেছেন আমাদের ওজন নাকি অনেক বেশি! সামনেই আমাদের আরেকটা ফিটনেস পরীক্ষা আছে, দেখা যাবে কারা ফিট নয়! আমরা এরকম মানুষদের মুখে তালা লাগিয়ে দিতে চাই। আমরা পাঁচবার বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছি। সস্তা জনপ্রিয়তা পাওয়ার জন্য এরকম অনেক কথাই বলে মানুষ। আমি তাঁদের একটা প্রশ্ন করতে চাই। তাঁরা খেলার জন্য কী করেছেন?  ক্যাচ মিস নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। সেরা ফিল্ডাররাও মাঝে মাঝে ক্যাচ ফেলে। যারা এসব নিয়ে কথা বলছে তাঁদের ক্রিকেট সম্পর্কে কোনো জ্ঞানই নেই! মাঠের বাইরে বসে অনেক কিছুই বলা যায়। কিন্তু মাঠে আপনাকে অনেক সিদ্ধান্ত নিতে হয় যা ভুলও হতে পারে। মন্তব্য করা মানুষদের কথার জবাব দেওয়ার সময় আমার নেই।”

    ১৯৭০ সাল থেকেই শ্রীলংকা দল নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন ক্রীড়া মন্ত্রী। চূড়ান্ত দল অনুমোদন তিনিই দেন। মালিঙ্গার প্রশ্ন, যদি ক্রিকেটাররা ফিটই না থাকে তাহলে তাঁদের দলে কেনো রেখেছেন মন্ত্রী, “দল নির্বাচনে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত তো মন্ত্রীই দেন। চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতেও এর ব্যতিক্রম হয়নি! তাহলে আমি তাঁকে প্রশ্ন করতে চাই, আনফিট ক্রিকেটারদের দলে রাখলেন কেনো? আর সেই দলের ফিটনেস নিয়ে কথাও বাঁ বলবেন কেনো? তিনি তো নিজেই স্ববিরোধী কথা বলছেন! এটা হাস্যকর। দলের সবার ফিটনেস ঠিক আছে। তাঁকে আরেকটা কথা বলতে চাই, শ্রীলংকার যুদ্ধ শেষ হয়েছে! সেনাবাহিনীতে যোগদান করতে হচ্ছে না আমাদের। আমাদের ফিজিও আছে এসব দেখার জন্য। হাশিম আমলা বিশ্বের সেরা একজন ব্যাটসম্যান, তাঁর ফিটনেস ডি ভিলিয়ার্সের মতো নয়!”

    প্রিয় প্যাভিলিয়ন পাঠক, 

    কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বের আরও অনেক কিছুর মতো অর্থনৈতিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে ক্রীড়াঙ্গনকে। পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে নতুন এক সংকটের মুখোমুখি হয়েছি আমরাও। প্যাভিলিয়নের নিয়মিত পাঠক এবং শুভানুধ্যায়ী হিসেবে আপনাদের কাছে অনুরোধ থাকবে আমাদের পাশে এসে দাঁড়ানোর। আপনার ছোট বা বড় যেকোনো রকম আর্থিক অনুদান আমাদের এই কঠিন সময়ে মূল্যবান অবদান রাখবে।

    ধন্যবাদান্তে,
    প্যাভিলিয়ন