• ক্রিকেট

সবার আগে প্লে-অফে সাকিবদের হায়দরাবাদ

দিল্লী ১৮৭/৫, ২০ ওভার (পান্ট ১২৮, সাকিব ২/২৭)
হায়দরাবাদ ১৯১/১, ১৮.৫ ওভার (ধাওয়ান ৯২*, উইলিয়ামসন ৮৩*)
হায়দরাবাদ ৯ উইকেটে জয়ী 


ঋশাভ পান্টের অসাধারণ এক সেঞ্চুরি বৃথা গেল শিখর ধাওয়ান ও কেন উইলিয়ামসনের দারুণ দুইটি ইনিংসে। দিল্লীর ১৮৭ রান হায়দরাবাদ পেরিয়ে গেছে ৭ বল ও ৯ উইকেট বাকি রেখেই। আইপিএলের এবারের মৌসুমে সবার আগে প্লে-অফে পৌঁছে গেল সাকিব আল হাসানদের হায়দরাবাদই। 

ম্যাচের শুরুর চিত্রনাট্যে ছিলেন সাকিবই। ৪র্থ ওভারে প্রথমে বোলিংয়ে এসে পরপর দুই বলে আউট করলেন পৃথ্বি শ ও জ্যাসন রয়কে, হায়দরবাদ পেলো জোড়া ব্রেকথ্রু। পুল করতে গিয়ে টপ-এজড শ, আর রয় শিকার বাঁহাতি স্পিনারের স্বপ্নের বলের। ফ্লাইট, উইকেটে পড়ে টার্ন, তার আগে ব্যাটের কানা ছুঁয়ে যাওয়া- সাকিব দাঁড়িয়ে গেলেন হ্যাটট্রিকের সামনে। সেটা হলো না, তবে ঠিকই বিপর্যয়ের পড়লো দিল্লী। 

শ্রেয়াস আইয়ার ও হার্শাল প্যাটেল- দুইজনই হলেন রান-আউট, দুইজনেরই সঙ্গী ছিলেন পান্ট, দুইজনই পান্টের সঙ্গে ভুল বুঝাবুঝির খেসারত দিলেন। ১৪ ওভার শেষে দিল্লীর রান ছিল ৯৮, ৫ উইকেটে। পান্টের রান তখন ৩৫ বলে ৪৯। এরপরই তিনি হয়ে উঠলেন অতিমানব। 

পরের ২৮ বলে করলেন ৭৯, দিল্লী পৌঁছালো ১৮৭ পর্যন্ত। পান্ট ভুবনেশ্বর কুমারের শেষ ওভারেই নিলেন ২৬ রান! সাকিব ও সন্দীপ শর্মা ছাড়া ঝড় বয়ে গেছে বাকি তিন বোলারদের ওপর দিয়েই, রশীদ খান ৪ ওভারে দিয়েছেন ৩৫, সিদ্ধার্থ কৌল ৪ ওভারে ৪৮, ভুবনেশ্বর তার চেয়েও ৩ রান বেশি! 

দিল্লীর মোট রানের ৬৪.৪৪ শতাংশই পান্টের, ব্রেন্ডন ম্যাককালামের ১৫৮ রানের ইনিংসের পর যা আইপিএলে সর্বোচ্চ। 

তবে পান্ট মিলিয়ে যেতে লাগলেন শীঘ্রই। দ্বিতীয় ওভারে প্যাটেলের বলে এলবিডাব্লিউ হয়ে ফিরলেন হেলস, এরপর শুধুই ধাওয়ান-উইলিয়ামসনময় ইনিংস হায়দরাবাদের। 

শেষ পর্যন্ত ধাওয়ান অপরাজিত ৫০ বলে ৯২ রানে, আর উইলিয়ামসন ৫৩ বলে ৮৩ রানে। বোলিং-নির্ভর হায়দরাবাদ আজ গুণলো দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৮৭ রান, সেই বোলারদের দায়টা মাথা পেতে নিয়ে খেলে গেলেন দুইজন। 

হায়দরাবাদও জিতলো মৌসুমে নিজেদের সবচেয়ে বেশি রান তাড়া করে। হয়তো প্লে-অফে সবার আগে যাওয়ার তাড়নাটা এ ম্যাচের আগে থেকেই ছিল তাদের, পান্টের ইনিংসটাও তাই ম্লান করে দিলেন তারা!